চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

ক্রিকেটার থেকে মন্ত্রী হওয়ার গল্প

প্রথমবার বিধানসভা নির্বাচনে দাঁড়িয়েছিলেন ভারতের জার্সিতে ওয়ানডে ও টি-টুয়েন্টি খেলা মনোজ তিওয়ারি। হাওড়া শিবপুর কেন্দ্রে জিতে একেবারে সরাসরি প্রতিমন্ত্রী হয়ে গিয়েছেন তিনি। ক্রীড়া এবং যুব কল্যাণ দফতরের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে মনোজকে।

বাংলার হয়ে দুরন্ত পারফরম্যান্সের সুবাদে ভারতীয় দলেও সুযোগ পেয়েছিলেন মনোজ। জাতীয় দলের জার্সিতে ১২টি ওয়ানডে খেলেছেন। তার সর্বোচ্চ রান অপরাজিত ১০৪। তিনটি টি-টুয়েন্টি ম্যাচও খেলেছেন এ ব্যাটসম্যান। তবে ভারতের টেস্ট দলে সুযোগ হয়নি তার।

বিজ্ঞাপন

দিল্লি ডেয়ারডেভিলস, কলকাতা নাইট রাইডার্স, রাইজিং পুনে, কিংস ইলেভেন পঞ্জাবের হয়ে খেলেছেন আইপিএল। ক্যারিয়ার যখন গোধূলিলগ্নে তিনি রাজনীতিকেই বেছে নেন। সাধারণ মানুষের জন্য ভাল কিছু কাজ করার লক্ষ্য নিয়েই নামেন রাজনীতির ময়দানে।

এর আগে জাতীয় দলে খেলা বাংলার আর এক ক্রিকেটার লক্ষ্মীরতন শুক্লা যুব কল্যাণ এবং ক্রীড়া দফতরের প্রতিমন্ত্রী ছিলেন। তিনি রাজনীতি থেকে সাময়িক বিরতি নিয়েছেন। লক্ষ্মীর ছেড়ে যাওয়া দায়িত্বই মনোজের হাতে তুলে দিয়েছে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের তৃণমূল সরকার।

খেলা ছাড়ার আগেই বড় দায়িত্ব পাওয়া নিয়ে মনোজ বলেন, ‘এতজন বিধায়ক নির্বাচিত হয়েছেন। এর মধ্য থেকে মন্ত্রী নেওয়া হয়েছে মাত্র ৪৩ জনকে। এর মধ্যে আমি আছি। এটা আমার জন্য বিরাট পাওয়া। এত গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্বে যে দিদি (মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়) আমাকে ভেবেছেন, সে জন্য আমি কৃতজ্ঞ।’

‘’আমি তো এখনো অবসর নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিইনি। হয়তো সামনে মাঠে নামব। তবে মন্ত্রিত্ব অনেক বড় দায়িত্ব। অনেক কঠিন দায়িত্ব। এত কাজ সামলে ক্রিকেট মাঠে নামার সময় থাকবে কি না, সেটা জানি না। দেখা যাক, আপাতত সামনে তো কোনো খেলা নেই।’’

বিজ্ঞাপন