চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

কেন ৬-৭ বছর একে অপরের সাথে কথা বলেননি তারা?

১৯৮৮ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত জনপ্রিয় সিনেমা ‘কেয়ামত সে কেয়ামত তাক’ এ অভিনয়ের মধ্য দিয়ে বলিউড ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিতে পা রাখেন আমির খান-জুহি চাওলা জুটি। প্রথম সিনেমাতে অভিনয়ের মধ্য দিয়েই তাদের মধ্যে বেশ ভাল বন্ধুত্ব গড়ে উঠেছিল। কিন্তু ‘ইশক’ ছবির শুটিং চলাকালীন সময়ে খুব সামান্য একটি কারণেই তাদের সেই বন্ধুত্বে ফাটল ধরে।

যার কারণে প্রায় ৬-৭ বছর এই দুই তারকার মাঝে কথা বন্ধ ছিল। সম্প্রতি সেই পুরনো ঘটনাকে মনে করেই এক সাক্ষাৎকারে কথা বলেছেন ‘মিস্টার পারফেকশনিস্ট’ খ্যাত তারকা আমির খান।

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

সাক্ষাৎকারটিতে আমির বলেন যে, ‘ইশ্ক’ সিনেমার শুটিংয়ের সময় খুব সামান্য কারণেই জুহির সঙ্গে আমার ঝামেলা হয়। আমার ইগোটা সেই সময় মনে হয় একটু বেশিই ছিল। তাই আমি ঠিক করি, ওর সঙ্গে আর কথা বলব না। এমন কী শুটিং সেটেও না! আমি ওর থেকে দূরত্ব রাখতে শুরু করি। আমি নিজেও জানি না কেন আমি এরকম করেছিলাম।

হাসতে হাসতে আমির আরো বলেন যে, ও যদি আমার পাশে এসে বসত, তবে আমি উঠে চলে যেতাম। অন্তত ৫০ফিট দূরে গিয়ে বসতাম। এমন কী কাজ শেষে ফেরার সময় বিদায়ও নিতাম না। শুধুমাত্র সিনের সময়ে যেটুকু কথা বলতে হত সেটুকুই। আর কাজের জন্য খুব প্রয়োজনে কথা বলতে হলে, সেটুকুও প্রফেশনাল ভাবেই বলতাম।

তবে আমির খানের সঙ্গে যখন তার প্রথম স্ত্রী রিনার বিচ্ছেদ হয়ে যাচ্ছে, সে সময়ে সব কিছু ভুলে আমিরকে ফোন করেছিলেন জুহি। আমির বলছিলেন, আমার পাশাপাশি রিনার সঙ্গেও জুহির ভাল সম্পর্ক ছিল। যখন আমাদের বিচ্ছেদ হয়, সে সময় জুহি আমাকে ফোন করে। আমাদের মধ্যে সমস্যা যাতে মেটানো যায় সেই উদ্দেশেই মূলত সে ফোন করেছিল। ও জানত, আমি ফোনটা নাও ধরতে পারি। তবুও করেছিল। যেটা আমার মনকে ছুঁয়ে গিয়েছিল। এরপর থেকেই মূলত জুহি এবং আমার বন্ধুত্ব আবারও স্বাভাবিক হয়ে যায়।