চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

কেনো বাদ পড়ছেন জানতে চান ইমরুল

চট্টগ্রাম থেকে: বাংলাদেশ দলে আসা-যাওয়ার মধ্যে থাকতে থাকতেই কেটে গেছে ১০ বছর। বয়সের সঙ্গে হয়েছেন পরিণত, ব্যাটে মিলছে রান, দেখা যাচ্ছে দায়িত্বশীলতার ছাপ। তবুও ভাগ্য ঘুরছে না কিছুতেই। গেল অক্টোবরে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজে ৩৪৯ রান করার পরও ঠাঁই হয়নি নিউজিল্যান্ড সফরের দলে।

সতীর্থরা যেটাকে দেখছেন দুর্ভাগ্য হিসেবে। ইমরুল কায়েস নিজেও এবার কারণটা জানতে চান। কী করলে টিকে থাকতে পারবেন জাতীয় দলে, নির্বাচকদের কাছে সে জিজ্ঞাসা ডানহাতি ওপেনারের।

বিজ্ঞাপন

জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে খুলনা টাইটানকে ৮০ রানে হারিয়ে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ানসের অধিনায়ক ইমরুল এলেন সংবাদ সম্মেলনে। বিপিএল সংক্রান্ত কথার শেষে জানতে চাওয়া হয় হল, কেনো একই ঘটনা বারবার ঘটছে? উত্তরে দুঃখ আড়াল করে কেবল আক্ষেপের সুরে বলে গেলেন-

‘গত দশ বছর ধরে তো এভাবেই খেলে আসছি, খেলতে হচ্ছে। নিজেও জানি না যে, আমি ভালো খেলার পরও পরের সিরিজে খেলতে পারব কি পারব না! নিজেও প্রত্যাশা করি না। আমি ওভাবেই মানসিকভাবে প্রস্তুত থাকি, যখনই জাতীয় দলের জন্য একটা সুযোগ পাই ওভাবেই খেলার চেষ্টা করি।’

বিজ্ঞাপন

ইমরুল নিজে জানেন না তার সমস্যা কী। জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ১৪৪, ৯০, ১১৫ রানের তিনটি ইনিংস খেলার পর উইন্ডিজ সিরিজে দুটি ম্যাচে খারাপ (৪, ০) করাতেই জাতীয় দল থেকে কাটা পড়েছেন এ বাঁহাতি। প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদিন নান্নু জানিয়েছেন কন্ডিশন বিবেচনায় তাকে রাখা হয়নি।

ইমরুল নিজে অবশ্য আরেকটু স্পষ্ট হতে চান। ব্যাটিংয়ের কোথায় সমস্যা সেটি জানতে পারলে উপকৃত হতেন বলেও মন্তব্য করলেন।

‘সেই জিনিসটা (কোথায় সমস্যা) যদি ক্লিয়ার করে তাহলে ওই জায়গাটা নিয়ে কাজ করতে পারি। আরও বেটার ওয়ার্ক করতে পারি। আমার কাছে মনে হয় এই জিনিসটা নির্দিষ্ট হওয়া আমার জন্য ভালো। কারণ আমি কেনো থাকছি না, বা কেনো নেই তা জানি না, হতে পারে টিম কম্বিনেশনের কারণে। হয়ত চিন্তা করেছে একই পজিশনে অনেক ব্যাটসম্যান। আমাকে দরকার নেই। তার জন্য হয়ত আমি তাদের (নির্বাচক প্যানেল) মাথায় নেই।’

কেউ চোটে পড়লে বা অফফর্মে থাকলেই জাতীয় দলে ডাক পড়ে অভিজ্ঞ ইমরুলের। ২০০৮ সালে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট শুরু করা এ বাঁহাতি ওপেনার পরিস্থিতির সঙ্গে অভ্যস্ত হয়ে গেছেন বলে দাবি করেন। হতাশ ইমরুল জানালেন, বাস্তবতা বদলাক সেটি তিনি প্রত্যাশাও করেন না।

Bellow Post-Green View