চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

কৃষি উদ্যোক্তাদের উৎসাহ শাইখ সিরাজ

খোরপোষ কৃষি থেকে আধুনিক বাণিজ্যিক কৃষির রূপান্তর প্রক্রিয়ায় কৃষি বিজ্ঞানী, গবেষক, সম্প্রসারণবিদ ও কৃষিনীতি প্রণেতাগণ গুরুত্বপূর্ন অবদান রেখে চলেছেন। এক্ষেত্রে সবচেয়ে জরুরি কাজটি করে থাকেন দেশের অসংখ্য ছোট বড় কৃষি উদ্যোক্তা, যারা কষ্টার্জিত পুঁজি সংস্থান করে ও ঝুঁকি নিয়ে নতুন নতুন প্রযুক্তির সমাহার ঘটিয়ে বিনিয়োগ করে থাকেন।

এজন্যে তাদের অভিজ্ঞতা, উৎসাহ ও সাহস সবই দরকার। তাত্বিক জ্ঞান ও সৎ পরামর্শের সাথে সাথে ভবিষ্যত উদ্যোক্তাদের আরও বেশি প্রয়োজন আধুনিক খামার ব্যবস্থার চাক্ষুষ উদাহরণ ও বাস্তব অভিজ্ঞতা। বাংলাদেশে এ সুযোগগুলো বেশ কম।

বিজ্ঞাপন

শাইখ সিরাজ এ শূন্যতা অনেকাংশে পূরণ করে চলেছেন। প্রখ্যাত অর্থনীতিবিদ হার্ভে লিবিনস্টাইনের মতে উদ্যোক্তারা হচ্ছেন পরিবর্তনের মাধ্যম। কৃষি উদ্যোক্তাগন প্রথমে নিজেরা এ পরিবর্তনটি সাধন করেন এবং পরে অন্যদের পরিবর্তন করতে পথ দেখান। শাইখ সিরাজ এ জায়গাটিতে দীর্ঘদিন ধরে বিরামহীন ভাবে অনুঘটকের ভূমিকা পালন করে যাচ্ছেন বাণিজ্যিক খামার সংশ্লিষ্ট তার বস্তুনিষ্ঠ উদাহরণ ও মনোজ্ঞ উপস্থাপনার মাধ্যমে।

শাইখ সিরাজ তার ‘হৃদয়ে মাটি ও মানুষ’ ও ‘হৃদয়ে মাটি ও মানুষের ডাক’ অনুষ্ঠানের মাধ্যমে মাঠে ঘাটে ঘুরে ঘুরে যেখানেই নতুন কোন প্রযুক্তি বা লাভজনক কর্ম-উদ্যোগের সন্ধান পান সেখানেই ছুটে যান, ক্যামেরায় ধারণ করেন বাস্তব কর্মকা-ের চিত্র, কথা বলেন কৃষক-শ্রমিক-খামারিদের সাথে তাদের ক্ষেত খামারে দাঁড়িয়ে, তাদেরই ভাষায়।

এভাবে তিনি বাংলাদেশে উন্নত ফসল ও সবজি চাষ, আধুনিক দেশি বিদেশি ফল বাগান, বাণিজ্যিক হাঁস-মুরগির খামার, মৎস্যচাষ, ফুলের চাষ, মৌমাছি ও মধু, গাভী পালন ও দুগ্ধ উৎপাদন সবকিছুকে তুলে আনেন তার প্রখর দৃষ্টি আর অনুসন্ধিতসু মন দিয়ে। শাইখ সিরাজ এখন গ্রাম ছাড়িয়ে নগর কৃষিকেও প্রচারে নিয়ে আসছেন। বিশেষ করে, তার প্রচারিত ছাঁদ-কৃষি প্রযুক্তি খুবই জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে এবং এ ব্যাপারে নীতি-নির্ধারকদের মাঝেও বেশ আগ্রহ সৃষ্টি করতে পেরেছেন।

বিজ্ঞাপন

শাইখ সিরাজ কৃষি যে একটি লাভজনক আধুনিক অভিজাত পেশা হতে পারে এ ধারণা ও বাস্তব উদাহরণগুলো দেশের উদীয়মান তরুনদের মাঝে ছড়িয়ে দিচ্ছেন। এটা সরকারের ঘোষিত তারুন্যের শক্তিকে উৎপাদনশীল কাজে লাগানোর নীতির সঙ্গে বেশ সাযুজ্যপূর্ণ। নতুন উদ্যোক্তাদের পুঁজি- সংস্থান, মানসম্পন্ন উপকরণ প্রাপ্তি, পণ্য বিপণন ইত্যাদি সমস্যা ও সম্ভাব্য সমাধান সম্পর্কিত মতামত তুলে ধরছেন টেলিভিশন ও পত্রিকার মাধ্যমে।

প্রতি বছর বাজেট ঘোষণার আগে সরকারের মন্ত্রী ও নীতি প্রণেতাদের উপস্থিতিতে গ্রাম পর্যায়ে কৃষকদের সমাবেশ থেকে ধারণকৃত শাইখ সিরাজের কৃষি বাজেট অনুষ্ঠানটি অত্যন্ত কার্যকর ও জনপ্রিয় হয়েছে। কৃষকের ঈদ আনন্দ অনুষ্ঠানটি তাঁর উদ্ভাবনীমূলক অনুষ্ঠানগুলোর মধ্যে সবচেয়ে জনপ্রিয়।

এর মাধ্যমে গ্রামীণ জনপদের প্রায় হারিয়ে যাওয়া খেলাধূলা, নৌকা বাইচ ও বিনোদন কার্যক্রমে কৃষকদের সরাসরি অংশগ্রহণ ও পুরষ্কার দিয়ে নির্মল আনন্দ দানের ব্যবস্থা করা হয়। শাইখ সিরাজ এখন দেশের সীমানা ছাড়িয়ে বিদেশের উন্নত কৃষির সঙ্গেও আমাদের পরিচয় করিয়ে দিচ্ছেন টেলিভিশন মাধ্যমে। তরুণ উদ্যোক্তাগণ এতে উৎসাহিত হচ্ছেন, আধুনিক বিজ্ঞানসম্মত কৃষি উতপাদন, প্রক্রিয়াজাতকরণ ও বিপণন ব্যবস্থার সঙ্গে পরিচিত হচ্ছেন। এটা একটা বড় কাজ।

কেবল তাই নয়, আমাদের দেশের তরুণ উদ্যোক্তাগণ বিদেশের মাটিতে যেমন জাপান, মধ্যপ্রাচ্য, ইউরোপসহ বিভিন্ন দেশে কীভাবে উন্নত প্রযুক্তি ও কলাকৌশল ব্যবহার করে আধুনিক উচ্চমূল্য কৃষি ব্যবস্থার সাথে সম্পৃক্ত হচ্ছেন শাইখ সিরাজ তাও তুলে আনছেন সুণিপুনভাবে। এটা আমাদের উদীয়মান বাণিজ্যিক কৃষির জন্যে অত্যন্ত শিক্ষণীয় ও উৎসাহব্যঞ্জক হয়ে উঠছে। একজন প্রতিবেদকের এটিই হচ্ছে সার্থকতা। তিনি মানুষকে উদ্দীপিত করছেন, কোন পথে এগুতে হবে তার ইশারা দিচ্ছেন এবং ঝুঁকিপূর্ণ কৃষি কর্মকা- শুরু করার নৈতিক সাহস যোগাচ্ছেন। শাইখ সিরাজ সুস্বাস্থ্য নিয়ে দীর্ঘজীবী হোন এবং তাঁর দীর্ঘ পথ পরিক্রমা আরও বিস্তৃত ও দীর্ঘস্থায়ী হোক।

(এ বিভাগে প্রকাশিত মতামত লেখকের নিজস্ব। চ্যানেল আই অনলাইন এবং চ্যানেল আই-এর সম্পাদকীয় নীতির সঙ্গে প্রকাশিত মতামত সামঞ্জস্যপূর্ণ নাও হতে পারে।)