চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

কুকুরের জন্য সঙ্গীত সন্ধ্যা

‘বিলি এলিয়ট: দ্য মিউজিক্যাল’ নামে কানাডার একটি সঙ্গীত দল সন্ধ্যায় মঞ্চে একের পর এক গান গাচ্ছিল। দর্শক সারিতে সবাই একদম নীরব, মনযোগী শ্রোতা। কোন শব্দ নেই, নেই কোন হাততালি ও আওয়াজ। আসলে দর্শকের আসনে কোন মানুষ ছিল না, ছিল বেশ কয়েকটি কুকুর।

জানা যায়, প্রশিক্ষণের অংশ হিসেবেই এই কুকুরদের জন্য সঙ্গীত সন্ধ্যাটির আয়োজন করা হয়েছিল ওন্টারিও’র স্ট্রাটফোর্ড ফেস্টিভ্যালে। এই কুকুরগুলো পরবর্তীতে ডগ স্কয়াডের সদস্য হিসেবে কাজ করবে নিরাপত্তা রক্ষায়।

এই প্রশিক্ষণের প্রধান প্রশিক্ষক লরা ম্যাকেনজি সিএনএনকে জানান, স্কয়াড ডগদের জন্য কে-৯ দুই বছরের এই প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করেছে। 

তিনি বলেন, ভবিষ্যতে এই কুকুরগুলোকে চিড়িয়াখানা, পাতাল রেল এবং মেলা পরিদর্শনের ব্যবস্থা করা হবে। যাতে অপরিচিত আলো, শব্দ, দ্রুত চলাচল এবং ভিড়কে খুব সহজেই মানুষের সাথে থেকে মোকাবেলা করতে পারে।

বিজ্ঞাপন

থিয়েটারে বসে থাকা কুকুরগুলো বেশ ভালোমতই উপভোগ করেছিল সঙ্গীত। ওই স্কয়াড ডগের দলটির কেউ কেউ সিটে না বসে সিটের নিচে বসেও উপভোগ করেছে প্রশিক্ষণের ওই ধারা।
প্রথমে শান্ত হয়ে বসে সঙ্গীত উপভোগের পাশাপাশি এদের মধ্যে কেউ কেউ গানের তালে তালে মাথা নাড়াচ্ছিল বলেও প্রতিবেদনে প্রকাশ।

বিজ্ঞাপন

স্ট্রাটফোর্ড ফেস্টিভ্যালের অ্যান সুইডফ্যাজার সিএনএনকে বলেছিলেন, থিয়েটারে এই ভিন্নধর্মী প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা এবং কুকুরদের এই অংশগ্রহণ আয়োজকদের অনেক বেশি রোমাঞ্চিত করেছে।
কুকুরদের নিখুঁত প্রশিক্ষণের জন্য অলাভজনক এই থিয়েটারটি তাদের সঙ্গীত পরিবেশন করেছেন। যেখানে কুকুরদের শ্রবণের সহনশীল করেই আলো,শব্দ এবং ভিড়কে নিয়ন্ত্রণ করা হয়েছে। প্রতিষ্ঠানটি জানিয়েছে অক্টোবরে আরেকটি অনুষ্ঠান আয়োজন করা হবে।

তারা আরও জানিয়েছে, আমরা যে উদ্দেশ্যে স্কয়াড ডগদের প্রশিক্ষণের জন্য সঙ্গীত পরিবেশন করেছি, তা সার্থক হয়েছে। কুকুরগুলি অত্যন্ত ভাল আচরণ করেছিল। আমরা আশা করি, তারা (কুকুরগুলো) আগামী কয়েকবছর আমাদের সাথে প্রশিক্ষণে এভাবেই সহযোগিতা করবে।

Bellow Post-Green View