চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

কী নৃশংস নির্যাতনের পরে হত্যা!

শিশু রাজন হত্যার রেশ কাটতে না কাটতে আবার ঘটেছে প্রায় একই ধরণের আরেকটি হত্যার ঘটনা। এবার খুলনায় চাকরি ছেড়ে দিয়ে অন্য কর্মস্থলে যাওয়ার কারণে রাকিব নামের ১২ বছরের এক কিশোরকে অমানুষিক নির্যাতনের পর হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা।

সোমবার বিকেলে নগরীর টুটপাড়া কবরস্থান সংলগ্ন মটর সাইকেল গ্যারেজে ওই নির্যাতনের ঘটনা ঘটে।

পুলিশ ও স্থানীয়দের সূত্রে জানায়, গতকাল সোমবার গ্যারেজে কাজ করা শিশু রাকিব কর্মস্থল ছেড়ে দিয়ে অন্য গ্যারেজে চাকরি নেওয়ার অপরাধে তার মলদ্বারে কম্প্রেসার মেশিন দিয়ে পেটে হাওয়া ঢুকিয়ে নির্যাতন করে শরিফ ও মিন্টু। গুরুতর আহত অবস্থায় খুলনা মেডিকেল কলেজ (খুমেক) হাসপাতালে ভর্তি করা হলে সেখানকার চিকিৎসকরা রাকিবকে জরুরি ভিত্তিতে ঢাকায় পাঠানোর পরামর্শ দেন। ঢাকায় আসার পথে রাত ১২টার দিকে মারা যায় শিশু রাকিব।

ওই সময় ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী ও আশপাশের মানুষ গ্যারেজ মালিক মিন্টু তার ভাই শরীফকে গণধোলাই দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করে। ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী মিন্টুর মা বিউটি বেগমকেও পুলিশ আটক করে থানায় নিয়ে যায়।

চিকিৎসকদের বরাত দিয়ে পুলিশ আরও জানায়, শিশু রাকিবের শরীরের অস্বাভাবিক পরিমাণ বাতাস প্রবেশ করানোর কারণে তার পেটের নাড়িভুড়ি ছিড়ে যায়, ফুসফুস ফেটে যায়। এছাড়াও ‍তার শরীরের বিভিন্ন অর্গান অকেজো হয়ে যাওয়ার কারণে সে মারা যায়।

রাকিবের মৃতদেহ ময়নাতদন্তের জন্য খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে রাখা হয়েছে। মঙ্গলবার তার ময়নাতদন্ত করা হবে।

এঘটনায় ক্ষোভ প্রকাশ করেছে এলাকাবাসী, মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে বলে নিহত শিশু রাকিবের পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে।

এই ঘটনার আপডেট: এই লিংকে ক্লিক করুন

শেয়ার করুন: