চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

কিমকে সুস্থ অবস্থায় ফিরতে দেখে ‘খুশি’ ট্রাম্প

কিম জং উন দীর্ঘসময় অনুপস্থিত থাকার পর সুস্থ অবস্থায় জনসম্মুখে ফেরায় খুশি মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। এই দুই বিশ্বনেতার সম্পর্ক যদিও তেমন ভালো নয়, তবুও কিমের ফেরার পর এক টুইটে খুশি হওয়ার কথা জানিয়েছেন ট্রাম্প।

কিমের ফিরে আসা নিয়ে টুইটারে ট্রাম্প লেখেন, ‘কিম ফিরে এসেছেন এবং ভালো আছেন শুনে আমি খুশি।’

বিজ্ঞাপন

গত ১১ এপ্রিল এক বৈঠকের পর থেকেই দেখা মিলছিল না নর্থ কোরিয়ার এ নেতার। এমনকি দেশটির প্রতিষ্ঠাতা ও তার দাদা ইল সাং-এর জন্মদিনের অনুষ্ঠানেও উপস্থিত ছিলেন না কিম জং।

বিজ্ঞাপন

অনেকেই ধারণা করেছিল, তার হয়তো স্বাস্থ্যের অবনতি হয়েছে। আবার কেউ কেউ আশঙ্কা করেছিলেন নর্থ কোরীয় নেতা হয়তো আর বেঁচেই নেই! অবশেষে সব গুজব উড়িয়ে ফিরে এসেছেন তিনি।

বিজ্ঞাপন

গত ২ মে নর্থ কোরিয়ার রাষ্ট্রীয় সংবাদমাধ্যম কেসিএনএ নিউজের এক খবরে প্রকাশ পায় যে, প্রেসিডেন্ট কিম শুক্রবার দেশটির একটি সার কারখানার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে অংশ নিয়েছেন। দীর্ঘদিন পর তাকে দেখে সমবেতরা উল্লাস প্রকাশ করে। পরে কিম ওই কারখানার উদ্বোধন করেন।

গেল সপ্তাহের সোমবার এক টুইট বার্তায় ট্রাম্প জানিয়েছিলেন, নর্থ কোরিয়ার নেতার শারীরিক অবস্থা সম্পর্কে তিনি জ্ঞাত, কিন্তু তিনি তা প্রকাশ করতে চান না।

দীর্ঘদিন থেকেই আমেরিকা আর নর্থ কোরিয়ার মাঝে বেশ খারাপ সম্পর্ক যাচ্ছে। তবে গত দুই বছরে তা কিছুটা হলেও উন্নতি হচ্ছিল। এ সময়কালে তারা তিনবার বিভিন্ন ইস্যু সমাধানে বৈঠকে মিলিত হয়েছেন। এমনকি একে অপরকে চিঠিও দিয়েছেন।

তবে মজার ব্যাপার হচ্ছে, এবারই প্রথম নয় ২০১৪ সালেও একবার ৪০ দিনের জন্য উধাও হয়েছিলেন কিম জং উন। সে বছর সেপ্টেম্বরে একটি কনসার্ট দেখতে গিয়ে উধাও হয়েছিলেন কিম। পরে ৪০ দিন পর ঘোড়ার পিঠে চড়া একটি হাস্যোজ্জ্বল ছবি পাওয়া যায় তার। কিন্তু তিনি কোথায় ছিলেন, সেই ব্যাপারে তখনও কোনো ব্যাখ্যা দেয়নি রাষ্ট্রীয় গণমাধ্যম।