চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

কিংবদন্তি নির্মাতার বিদায়


আমজাদ হোসেন ছিলেন সাহিত্যিক, কাহিনীকার, পরিচালক, গীতিকার এবং অভিনেতা। ১৯৪২ সালের ১৪ই আগস্ট জামালপুরে জন্ম করেন তিনি। কলেজে পড়ার সময় কলকাতার দেশ পত্রিকায় কবিতা লিখে সাড়া ফেলেছিলেন তিনি। ১৯৫৯ সালে রাজধানীতে এসে পুরোদমে শুরু করেন সাহিত্য ও নাট্যচর্চা। ১৯৬১ সালে হারানো দিন চলচ্চিত্রে অভিনয়ের মধ্য দিয়ে চলচ্চিত্র জীবন শুরু। ১৯৬৭ সালে ‘জুলেখা’ চলচ্চিত্র পরিচালনার মধ্য দিয়ে পরিচালক হিসেবে আত্মপ্রকাশ। নয়নমণি, গোলাপী এখন ট্রেনে, দুই পয়সার আলতা, ভাত দে, হীরামতির মতো অসংখ্য চলচ্চিত্রের জন্য বহুল প্রশংশিত হন। বাংলা চলচ্চিত্র এবং শিল্প সাহিত্যের বিভিন্ন ক্ষেত্রে অবদানের জন্য বিভিন্ন সময়ে বহু সম্মাননায় ভূষিত হয়েছেন। এর মধ্যে রয়েছে- একুশে পদক, অগ্রণী ব্যাংক শিশু সাহিত্য পুরস্কার, বাংলা একাডেমি পুরস্কার জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার। মস্তিষ্কে রক্তক্ষরণ জনিত বাধার কারণে গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় ১৮ই নভেম্বর প্রথমে তাকে রাজধানীর ইমপালস হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। উন্নত চিকিৎসার জন্য ২৭শে নভেম্বর রাতে থাইল্যান্ডের বামরুগ্রাদ হাসপাতালে নেয়া হয়। ১৪ই ডিসেম্বর থাইল্যান্ডের বামরুনগ্রাদ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় বাংলাদেশ সময় দুপুর ২টা ৫৭ মিনিটে তিনি শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। সৃষ্টিকর্মের মধ্য দিয়ে মানুষের মনে টিকে থাকবেন আমজাদ হোসেন।

Bellow Post-Green View