চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

কানের বদলে কাটা হলো কান

স্ত্রীর সঙ্গে পরকীয়ার প্রেমের অভিযোগে কয়েক মাস আগে স্বামী কেটে নিয়েছিলেন পরকীয়া প্রেমিকের কান। তার কয়েক মাস পর সেই পরকীয়া প্রেমিকই কেটে নিলেন স্বামীর কান।

পরকীয়া প্রেমের জেরে এভাবেই কানের বদলে কান গেলো দুই তরুণের। নৃশংস এই ঘটনাটি ঘটেছে গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ার পাটগাতী বাসষ্ট্যান্ডে।

বিজ্ঞাপন

সোমবার দিন দুপুরে শ্রীরামকান্দি গ্রামের শওকত সরদারের ছেলে (স্বামী) সোহাগের কান কেটে নেয় অভিযুক্ত পরকীয়া প্রেমিক রাজীব শেখ।

সোহাগের কান কেটে পলিথিনের ব্যাগে ভরে উল্লাস করতে করতে ঘরে ফিরেছে রাজীব শেখ। রাজীব টুঙ্গিপাড়া উপজেলার একই গ্রামের আওয়ামী লীগ নেতা শুকুর শেখের ছেলে।

গুরুতর আহত সোহাগকে প্রথমে টুঙ্গিপাড়া ও পরে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা পাঠানো হয়েছে।

বিজ্ঞাপন

বিকাল ৪টার পর এ ঘটনা ঘটলেও এই ঘটনাটি জানাজানি হয় সন্ধ্যার পর।

আহত সোহাগ সাংবাদিকদের জানান, বিকালে আমি ঢাকার উদ্দেশ্যে বাড়ি থেকে বের হয়ে পাটগাতী বাসস্ট্যান্ডে যাই। কিছুক্ষণ পর রাজীব শেখসহ ১০/১২জন যুবক পেছন দিক থেকে আমাকে হত্যার উদ্দেশ্যে রাম দা দিয়ে কোপাতে থাকে। এক পর্যায়ে তারা আমার বাম পাশের কান কেটে নিয়ে পলিথিনের ব্যাগে ভরে উল্লাস করতে করতে চলে যায়।

ঘটনার কারণ কি জানতে চাইলে সোহাগ জানান, আমার স্ত্রীর সাথে রাজীবের পরকীয়া সম্পর্ক রয়েছে জানতে পেরে দুই মাস আগে আমি রাজীবের কান কেটে নিয়েছিলাম। তার প্রতিশোধ নিয়েছে রাজীব।

সন্ধ্যায় এ ঘটনা জানাজানির পর এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্যকর পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়েছে।

গুরুতর আহত কান কাটা যাওয়া সোহাগ এই বিষয়ে মামলার প্রস্তুতি নিচ্ছেন বলে জানান।

এর আগে রাজীবের কান কেটে নেওয়া হলে  তার বাবা টুঙ্গিপাড়া থানায় একটি মামলা দায়ের করেছিলেন। সোহাগের পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, টুঙ্গিপাড়ার শ্রীরামকান্দি গ্রামের শওকত সরদারের ছেলে সোহাগ স্ত্রী-সন্তান বাড়িতে রেখে ঢাকায় একটি বেসকারি প্রতিষ্ঠানে চাকরি করে। এই সুযোগে পাশের বাড়ির শুকুর আলীর কলেজ পড়ুয়া ছেলে রাজীব সোহাগের স্ত্রীর সঙ্গে প্রেমের সম্পর্কে জড়িয়ে পড়ে।

Bellow Post-Green View