চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

কলেজ খুলছে না, চিন্তায় আছেন দীঘি

করোনার সংক্রমণ বৃদ্ধির কারণে এখনই খুলছে না স্কুল-কলেজ। সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের চলমান সাধারণ ছুটি থাকছে ১২ জুন পর্যন্ত। পরবর্তীতে পরিস্থিতি বিবেচনায় শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খোলার ব্যবস্থার কথা বলেছেন শিক্ষামন্ত্রী। এ নিয়ে চিন্তায় আছেন শিশুশিল্পী হিসেবে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পেয়ে তারকা বনে যাওয়া আজকের চিত্রনায়িকা প্রার্থনা ফারদিন দীঘি।

রবিবার দুপুরে চ্যানেল আই অনলাইনের সঙ্গে আলাপে দীঘি জানান, তিনি তার কলেজে যাওয়া আসা ভীষণভাবে মিস করছেন।

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

দীঘি মনে করেন, ক্লাসে উপস্থিতি, বন্ধুদের সঙ্গে দেখা আড্ডা দেয়া এবং শিক্ষকদের সঙ্গে দেখা হওয়ার অনুভূতি অন্যরকম। তিনি বলেন, এই অনুভূতি বলে বোঝাতে পারবো না। গত দেড় বছর হলো কলেজে গিয়ে ক্লাস করতে পারিনা। এজন্য মাঝেমধ্যে খারাপ লাগে।

বিজ্ঞাপন

রাজধানীর স্টামফোর্ড কলেজে উচ্চ মাধ্যমিকে বিজ্ঞান বিভাগে দ্বিতীয় বর্ষের লেখাপড়া করছেন দীঘি। শুটিংয়ের কারণে অন্যদের মতো ক্লাসে নিয়মিত উপস্থিত থাকতে পারতেন না তিনি। তবে পরীক্ষা হাজির থাকতেন। তিনি বলেন, কলেজে ক্লাস করতে না পারলেও বাসা থেকে অনলাইনে ক্লাস করি, পরীক্ষা দিচ্ছি। ক্লাসে উপস্থিত থেকে লেখাপড়ার যে চর্চা হয় অনলাইনে সেই চর্চা কোনোদিনই সম্ভব হয় না। চিন্তার কারণ এখনো বুঝতে পারছি না কি হবে! কতদিন অপেক্ষা এভাবে করতে হবে!

মজা করে দীঘি বলেন, শিক্ষার্থী হিসেবে আমি কিছুটা ফাঁকিবাজ। বাকিদের কথা জানি না, দীর্ঘসময় শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান না খোলায় আমার মতো ফাঁকিবাজ শিক্ষার্থীদের একটু হলেও মানসিক সমস্যায় পড়বে।

চলতি বছর নায়িকা হিসেবে দীঘির দুটি সিনেমা মুক্তি পেয়েছে। একটি ‘তুমি আছো তুমি নেই’, অন্যটি ‘টুঙ্গিপাড়ার মিয়াভাই’। তার অভিনীত আরেক সিনেমা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের বায়োপিক ‘বঙ্গবন্ধু’ নির্মাণাধীন। এতে দীঘি অভিনয় করছেন বঙ্গবন্ধুর স্ত্রী বেগম ফজিলাতুন্নেসা রেনুর চরিত্রে। সম্প্রতি ‘শেষ চিঠি’ নামে আরও একটি ওয়েব ফিল্মে কাজ করেছেন তিনি।