চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

করোনা: স্বল্প আয়ের শ্রমজীবীদের জন্য রেশনিং ব্যবস্থার আহ্বান

দেশে বৈশ্বিক মহামারী করোনার প্রাদুর্ভাব ঠেকাতে ইতোমধ্যে ২৬ মার্চ থেকে ৪ এপ্রিল পর্যন্ত সাধারণ ছুটি ঘোষণা করেছে সরকার। এক শ্রেণীর অসাধু ব্যবসায়ীরা নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্য বেশি দামে বিক্রি করছে। স্বল্প আয়ের শ্রমজীবী মানুষেরা এসময় কর্মহীন হয়ে পড়েছে। তাদের জন্য দ্রুত রেশনিং ব্যবস্থা করার আহ্বান জানিয়েছে আত্মদায়বদ্ধ সংগঠন প্রজন্মের চেতনা।

শুক্রবার প্রজন্মের চেতনার পক্ষ থেকে গণমাধ্যমে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, ‘‘করোনাভাইরাসে আক্রমণের স্থবির হয়ে পড়েছে গোটা বিশ্ব। অন্যান্য দেশের মতো বাংলাদেশেও এর প্রভাব পড়েছে। আমরা গভীর উদ্বেগের সঙ্গে লক্ষ্য করছি, দেশের মানুষ যখন করোনাভাইরাসের কবল থেকে নিজেদের জীবন বাঁচাতে পরিবার-পরিজন নিয়ে উদ্বেগ আর উৎকন্ঠার মধ্যে দিন কাটাচ্ছেন, তখন এদেশেরই কিছু সুযোগ সন্ধানী অসাধু ব্যবসায়ী নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্য বেশি দামে বিক্রি করছে। জাতির এই ক্রান্তিলগ্নে বিষয়টি অত্যন্ত বেদনাদায়ক।

বিজ্ঞাপন

তাই সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ কর্তৃক খুবই দ্রুত দেশের সল্প আয়ের শ্রমজীবী মানুষদের রেশনিং ব্যবস্থা করাসহ সর্বত্র ব্যাপক মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করে দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণ এবং অতিরিক্ত পণ্য ক্রয়কারীদের বিরুদ্ধেও প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা দরকার।’’

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়, প্রজন্মের চেতনা মনে করে করোনাভাইরাসকে কেন্দ্র করে পরিস্থিতি জটিল থেকে জটিলতর হচ্ছে। দেশের এই বিরাজমান পরিস্থিতিতে ওই মানুষরূপি বিবেকহীন দানবগুলোর বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করা সময়ের দাবি।

বিশ্বের বিভিন্ন দেশে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মৃতের সংখ্যা ২৪ হাজার ছাড়িয়েছে। চিকিৎসা শেষে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছে ১ লাখ ২৩ হাজার ৯৪২ জন। এখন পর্যন্ত করোনায় সবচেয়ে বেশি আক্রান্তের সংখ্যা যুক্তরাষ্ট্রে। এর আগ পর্যন্ত সবচেয়ে বেশি আক্রান্ত ছিল চীনে।

দেশে সরকারের সরকারের রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠানের (আইইডিসিআর) দেয়া তথ্যানুযায়ী, করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৪৮ জনে। এরমধ্যে দু’জন চিকিৎসক। হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে ২৭জন, সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ১১ জন, প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইনে আছেন ৪৮ জন, হোম কোয়ারেন্টাইনে আছেন ২৩ হাজার, আইসোলেশনে আছেন ৪৭ জন এবং মারা গেছেন ৫ জন।

করোনাভাইরাস সীমিত পর্যায়ে কমিউনিটিতে ছড়িয়ে পড়ছে বলে আশঙ্কার কথা জানিয়েছেন আইইডিসিআর পরিচালক ডা. মীরজাদী সেব্রিনা ফ্লোরা।