চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

করোনা সন্দেহে ভর্তি থাকা রোগী হাসপাতালের ছাদ থেকে আত্মহত্যা

করোনা আতঙ্ক যেখানে বিশ্বজুড়ে, সেখানে করোনা সন্দেহে হাসপাতালে ভর্তি হওয়া এক রোগী লাফ দিয়ে আত্মহত্যা করেছেন বলে জানিয়েছে ভারতীয় সংবাদ মাধ্যম এনডিটিভি।  

দিল্লির সফদরজং হাসপাতালের সপ্তম তলা থেকে ঝাঁপ দিয়ে আত্মহত্যা করার ঘটনাটি দেশটিতে ছড়িয়েছে চাঞ্চল্য।

বিজ্ঞাপন

জানা গেছে, করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন এই সন্দেহে ওই ব্যক্তিকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছিল। সফদরজং হাসপাতালে তাকে করোনা আক্রান্ত  রোগীদের চিকিৎসার জন্যে নির্দিষ্ট বিশেষ বিচ্ছিন্ন ওয়ার্ডে রাখা হয়েছিল।

পুলিশের অনুমান, তারপর থেকেই সম্ভবত অবসাদে ভুগছিলেন তিনি। আর সেই অবসাদ থেকেই আত্মহত্যার পথ বেছে নেন ওই ব্যক্তি। মারা যাওয়া ব্যক্তির বয়স ৪৫ বছর বলে জানিয়েছেন দিল্লি পুলিশ।

তাকে দিল্লির ইন্দিরা গান্ধী বিমানবন্দর থেকে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত সন্দেহে হাসপাতালে পাঠানো হয়েছিল। বুধবার রাত ৯টা নাগাদ তাকে ভর্তি করা হয়। কিন্তু তিনি বৃহস্পতিবার ওই হাসপাতালের সুপার স্পেশালিটি ব্লক বিল্ডিং থেকে লাফিয়ে আত্মহত্যা করেছেন বলে জানিয়েছে পুলিশ।

দিল্লি পুলিশ জানান, প্রাথমিক তদন্তের পর জানা গেছে যে ওই যুবক পাঞ্জাবের বাসিন্দা ছিলেন এবং গত প্রায় এক বছর ধরে সিডনিতে বাস করতেন তিনি। তিনি এয়ার ইন্ডিয়ার একটি বিমানে করে দিল্লি আসেন।

হাসপাতাল সূত্রে , সফদরজং হাসপাতালে ভর্তি করার পর তার রক্তের নমুনা নেওয়া হয় এবং সেগুলিকে পরীক্ষার জন্যে পাঠানোও হয়। তবে সেই পরীক্ষার রিপোর্ট আসার আগেই ঝাঁপ দিয়ে আত্মহত্যার পথ বেছে নিলেন যুবকটি।

তিনি আইসোলেশন ওয়ার্ড খুলে তাকে বেরোতে দেওয়ার জন্যে জোরাজুরি করেছিলেন বলে জানা গেছে। তারপরেও হাসপাতাল কর্মীরা তাকে সেখান থেকে বেরোতে না দেওয়ায় সপ্তম তলা থেকে ঝাঁপ দিয়ে আত্মহত্যা করেন তিনি।

ভারতে কোভিড-১৯ আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১৬৯-এ, মৃত্যু হয়েছে ৩ জনের।

বিজ্ঞাপন