চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

করোনা মোকাবিলায় ইউরোপ-আমেরিকা ব্যর্থ হলেও শেখ হাসিনা সফল: খালিদ মাহমুদ

করোনা মোকাবিলায় আমেরিকা-ইউরোপ যেখানে ব্যর্থ হয়েছে, বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সেখানে সফল হয়েছেন বলে মন্তব্য করেছেন নৌ পরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী।

মুজিববর্ষ উপলক্ষে ‘ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবারের জন্য গৃহ নির্মাণ’ কাজের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন ও সুধী সমাবেশে তিনি এ মন্তব্য করেন। শনিবার বিকেলে দিনাজপুর জেলা বিরলের বেজোড়া উচ্চ বিদ্যালয় মাঠ প্রাঙ্গণে এ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।

বিজ্ঞাপন

নৌ প্রতিমন্ত্রী বলেন, করোনা নিয়ন্ত্রণে রাখতে আমেরিকা যখন ব্যর্থ হয়েছে, তাদের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে কীভাবে প্রভাব ফেলেছে আপনারা দেখেছেন। এ ব্যর্থতার কারণে ডোনাল্ড ট্রাম্পকে পরাজয় বরণ করতে হয়েছে। ইউরোপের দেশে দেশে তারা ব্যর্থতার পরিচয় দিয়েছে। সেখানে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এখনও বাংলাদেশের করোনা পরিস্থিতিকে নিয়ন্ত্রণে রেখেছেন। পৃথিবীর অন্যান্য দেশের মতো বাংলাদেশের জনগণ মৃত্যুর মুখোমুখি হয়নি।

তিনি বলেন, বাংলাদেশের জনগণ যেন আগেভাগে করোনার ভ্যাকসিন পায় সেজন্য এক হাজার কোটি টাকা আগাম বরাদ্দ দিয়ে রেখেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। জেলা উপজেলায় করোনা চিকিৎসার ব্যবস্থা করা হয়েছে। বাংলাদেশ করোনা মোকাবিলায় সফলতার পরিচয় দিয়েছে।

বিজ্ঞাপন

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার মানবিকতার কথা তুলে ধরে খালিদ বলেন, শরণার্থীদের আশ্রয় দেয়ার ক্ষেত্রে যখন জার্মানি ও ইতালি ব্যর্থতার পরিচয় দিয়েছে। তখন বাংলাদেশের জনগণকে সঙ্গে নিয়ে ১২ লাখ রোহিঙ্গাকে আশ্রয় দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এটাই মানবিক বাংলাদেশ।

খালিদ বলেন, বাংলাদেশে অন্যান্যদের রাজনীতি যখন ব্যর্থতার পরিচয় দিয়েছে। শেখ হাসিনার উন্নয়নের রাজনীতি সেখানে সফলতার পরিচয় দিয়েছে। জাতীয় সংসদে যখন বিএনপি দলীয় সংসদ সদস্য বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ১৬ কোটি জনগণের নেতা। তখন আমরা গর্বিত হই। এ সত্য চাপিয়ে রাখা যাবেনা। শেখ হাসিনা শুধু বাংলাদেশে নয়; আন্তর্জাতিক অঙ্গনেও এক আলোকিত নাম বলে মন্তব্য করেন নৌ প্রতিমন্ত্রী।

এর আগে দুপুরে বিরল উপজেলা পরিষদ হলরুমে উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর আয়োজিত রবি মৌসুমে কৃষি প্রণোদনা ও পুনবার্সন কর্মসূচির আওতায় ক্ষুদ্র প্রান্তিক কৃষকদের মাঝে বিনামূল্যে বীজ ও রাসায়নিক সার বিতরণের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে খালিদ মাহমুদ চৌধুরী বলেন, ‘পঁচাত্তর সালের পরে প্রথমবারের মতো ১৯৯৬ সালে বাংলাদেশের কৃষকদের জন্য এবং কৃষির জন্য ভর্তুকি দিয়েছিলেন শেখ হাসিনা সরকার। বঙ্গবন্ধুকে পঁচাত্তরের ১৫ আগস্ট হত্যা করার পর জিয়া এরশাদ এবং খালেদা জিয়া তারা কখনো কৃষকদের জন্য এবং কৃষির জন্য ভর্তুকি দেন নাই। তারা ভর্তুকি দিয়েছিলেন অন্যখাতে, অস্ত্র কেনা, সামরিক খাতে। কিন্তু কৃষকদের জন্য ভর্তুকি দেন নাই। বঙ্গবন্ধু বলেছিলেন, দেশের নব্বই ভাগ কৃষক গ্রামে থাকেন গ্রামে যেতে হবে। কিন্তু তাদের (জিয়া-খালেদা জিয়া) মনোযোগ গ্রামের দিকে ছিল না।

খালিদ মাহমুদ বলেন, শেখ হাসিনার সরকারকে যখন বিশ্বব্যাংক বাধা দিয়েছিল যে এই ভর্তুকি দেয়া যাবে না, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তখন বলেছিলেন, ‘বিশ্বব্যাংকের কথায় বাংলাদেশ চলবে না। বাংলাদেশ চলবে বাংলাদেশের মানুষের জন্য যেটা ভালো হয় সেইভাবেই বাংলাদেশ চলবে।’

এ সময় উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মো. শরিফুল ইসলাম, উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোস্তাফিজুর রহমান বাবু, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও পৌর মেয়র সবুজার সিদ্দীক সাগর প্রমুখ।