চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

করোনা: জীবিকার তাগিদে ঘরে থাকছে না শ্রমজীবীরা

গোপালগঞ্জ প্রতিনিধি: গোপালগঞ্জে করোনাভাইরাসে আক্রান্তের ভয় উপেক্ষা করে জীবিকার তাগিদে মাঠে নেমেছে শ্রমজীবীরা। দোকানগুলোতেও ভিড় কম নয়, একেবারেই অসচেতনভাবে জমায়েত হচ্ছে মানুষেরা।

শ্রমজীবীরা বলছেন: রিক্সা, ভ্যান, ইজিবাইক না চালালে খাবার পাবেন কোথায়? সাথে রয়েছে কিস্তির চিন্তাও। তাই মৃত্যুর ভয় উপেক্ষা করে খাবার সংগ্রহ করতে গণলাইনে দাঁড়াতেও দ্বিধা করছেন না এই নারীও পুরুষেরা। তিন চাকার যানবাহনগুলোতে তোলা হচ্ছে অতিরিক্ত যাত্রী।

বিজ্ঞাপন

গোপালগঞ্জের জেলা প্রশাসক শাহিদা সুলতানা সাংবাদিকদের বলেছেন: করোনা প্রতিরোধে মানুষকে ঘরে থাকতে হবে, এর জন্য যা যা করণীয় গোপালগঞ্জ জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে তাই করা হবে। এরই মধ্যে সেনাবাহিনীর সাহায্য নেওয়া হয়েছে ।

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

তিনি বলেন: তিন চাকার যানবাহনগুলোর চলাচল বন্ধ করতে মাঠে নেমেছে তারা। এছাড়াও সকারের নির্দেশ মেনে যেসব দরিদ্র মানুষ ঘরে থাকবে তাদের খাদ্যের অভাবে পড়তে হবে না, সরকার এই বিষয়টা অত্যন্ত গুরুত্বের সাথে চিন্তা করছে ।

গোপালগঞ্জের সিভিল সার্জন ডাঃ নিয়াজ মোহাম্মাদ বলেছেন: করোনা আতঙ্কে হাসপাতালে থাকছে না রোগীরা। এরই মধ্যে হাসপাতালের বেশীরভাগ বেড খালি হয়ে গেছে।

অন্যদিকে গোপালগঞ্জ সদর উপজেলার করপাড়া ইউনিয়ন উন্নয়ন কমিটির সভাপতি মো, দ্বীন ইসলাম মোল্লা জঈন ও সাধারণ সম্পাদক আল-মামুন সরদার তার কমিটির অন্যান্য সদস্যদের সঙ্গে নিয়ে প্রতিদিন শত শত নারী–পুরুষ সহ বিভিন্ন বয়সের মানুষদের মধ্যে মাস্ক, হ্যান্ড ওয়াস ও সাবান বিনামুল্যে বিতরণ করছেন। কেউ যাতে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত না হন এ জন্য সচেতন করছেন মানুষদের।

পুলিশ সুপার মুহম্মদ সাইদুর রহমান বলেছেন: করোনাভাইরাসে কেউ যাতে আক্রান্ত না হন সে জন্যই মানুষকে কয়েকদিন ঘরে থাকতে বলা হয়েছে। জরুরি কোনো কাজ ছাড়া কেউ যাতে ঘর থেকে বাইরে না যান সেজন্য পুলিশ মানুষের বাড়িতে বাড়িতে গিয়ে পরামর্শ দিচ্ছে।