চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

করোনা: আক্রান্ত নেই ৪১ জেলায়, মৃত্যু ২

শনাক্তের হার ১.১৫ শতাংশ

দেশে কোভিড-১৯ সংক্রমণের ৬৩০তম দিনে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত দু’জন মারা গেছেন। এখন পর্যন্ত মোট মৃত্যুর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ২৭ হাজার ৯৭৫ জন। আর শনাক্তের হার ১ দশমিক ১৫ শতাংশ।

গত ২৪ ঘণ্টায় সাত বিভাগে কেউ মারা যায়নি, পাশাপাশি দেশের ৪১ জেলায় নতুন করে করোনা আক্রান্ত নেই।

নতুন করে শনাক্ত হয়েছেন ১৫৫ জন। গত ২০ নভেম্বর দেশে প্রথমবারের মতো করোনায় মৃত্যুহীন দিন দেখে বাংলাদেশ। এর আগে গত ৫ আগস্ট দেশে সর্বোচ্চ ২৬৪ জন রোগী মারা যায়। গত ২৮ জুলাই সর্বোচ্চ শনাক্ত হয় ১৬ হাজার ২৩০ জন।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (প্রশাসন) অধ্যাপক ডা. আহমেদুল কবীরের সই করা এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, শনিবার সকাল ৮টা পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টায় (অ্যান্টিজেন টেস্টসহ) ১৩ হাজার ১৪২টি পরীক্ষায় ১৫৫ জন এই ভাইরাসে শনাক্ত হয়েছেন। এই সময়ে পরীক্ষার বিপরীতে শনাক্তের হার এক দশমিক ১৫ শতাংশ। তবে শুরু থেকে মোট পরীক্ষার বিপরীতে শনাক্তের হার ১৪ দশমিক ৫৫ শতাংশ।

সরকারি ব্যবস্থাপনায় এখন পর্যন্ত ৭৭ লাখ ৪৯ হাজার ৬০৯টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে, বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় পরীক্ষা হয়েছে ৩০ লাখ ৮২ হাজার ৬৩৮টি নমুনা। অর্থাৎ মোট পরীক্ষা করা হয়েছে এক কোটি আট লাখ ৩২ হাজার ২৪৭টি নমুনা। এর মধ্যে শনাক্ত হয়েছেন ১৫ লাখ ৭৫ হাজার ৫৭৯ জন। তাদের মধ্যে ২৪ ঘণ্টায় ১৮৮ জনসহ মোট ১৫ লাখ ৪০ হাজার ১৮ জন সুস্থ হয়েছেন। শনাক্ত বিবেচনায় সুস্থতার হার ৯৭ দশমিক ৭৪ শতাংশ।

বিজ্ঞাপন

গত ২৪ ঘণ্টায় যে দু’জন মারা গেছেন তাদের মধ্যে একজন পুরুষ ও একজন নারী। তাদের মধ্যে সবার হাসপাতালে (সরকারিতে দু’জন) মৃত্যু হয়েছে। তারাসহ মৃতের মোট সংখ্যা ২৭ হাজার ৯৭৫ জন। মোট শনাক্ত বিবেচনায় মৃত্যুহার এক দশমিক ৭৮ শতাংশ।

এখন পর্যন্ত সরকারি হাসপাতালে মারা গিয়েছেন ২৩ হাজার ৭৮৬ জন, যার শতকরা হার ৮৫ দশমিক ০৩ শতাংশ। বেসরকারি হাসপাতালে মারা গিয়েছেন তিন হাজার ৩৭৮ জন, যার শতকরা হার ১২ দশমিক ০৮ শতাংশ। বাসায় ৭৭৭ জন মারা গিয়েছেন, যার শতকরা হার দুই দশমিক ৭৮। এছাড়াও মৃত অবস্থায় হাসপাতালে এসেছেন ৩৪ জন, যার শতকরা হার দশমিক ১২ শতাংশ।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের তথ্যমতে, এখন পর্যন্ত ১৭ হাজার ৯০১ জন পুরুষ মারা গেছেন যা মোট মৃত্যুর ৬৩ দশমিক ৯৯ শতাংশ এবং ১০ হাজার ৭৪ জন নারী মৃত্যুবরণ করেছেন যা মোট মৃত্যুর ৩৬ দশমিক এক শতাংশ।

বয়সভিত্তিক বিশ্লেষণে দেখা গেছে, ২৪ ঘণ্টায় করোনায় মৃত দু’জনের মধ্যে ত্রিশোর্ধ্ব একজন ও ষাটোর্ধ্ব একজন। আর বিভাগওয়ারী হিসাবে ঢাকা বিভাগে দু’জন।

করোনাভাইরাসে বিশ্বের ২২২টি দেশ ও অঞ্চলে এখন পর্যন্ত ২৬ কোটি ১০ লাখের বেশি মানুষ আক্রান্ত হয়েছেন। এদের মধ্যে মারা গেছেন ৫২ লাখ নয় হাজারের বেশি মানুষ। তবে সুস্থ হয়ে ঘরে ফিরেছেন ২৩ কোটি ৫৮ লাখের বেশি।

বিজ্ঞাপন