চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

মার্চের মধ্যে করোনায় ইউরোপে ৭ লাখ মৃত্যুর আশঙ্কা

এর আগে ফেব্রুয়ারির মধ্যে ৫ লাখ মৃত্যুর ধারণা দিয়েছিল ডব্লিউএইচও

আগামী মার্চ মাসের মধ্যে করোনাভাইরাসে ইউরোপে সাত লাখ মানুষের মৃত্যু হতে পারে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করেছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও)। এই হিসেবে শুধু ইউরোপে করোনায় মোট মৃত্যুর সংখ্যা ২০ লাখ ছাড়িয়ে যেতে পারে।

ডব্লিউএইচও ইউরোপ শাখার পরিচালক হ্যান্স ক্লুগের বরাতে বিবিসি জানিয়েছে, ইউরোপে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ নিয়ে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা খুবই চিন্তিত।

সংস্থাটির পক্ষ থেকে বলা হচ্ছে, ইউরোপে দৈনিক মৃতের সংখ্যা ৪ হাজার দুইশোতে দাঁড়িয়েছে, যা গত সেপ্টেম্বর মাসে দৈনিক মৃত্যুর চেয়ে প্রায় দ্বিগুণ।

বিজ্ঞাপন

যুক্তরাজ্যসহ গোটা ইউরোপে মোট মৃত্যু এখনই ১৫ লাখ ছাড়িয়ে গেছে। এমন পরিস্থিতিকে ‘অত্যন্ত ভয়াবহ’ বলছে ডব্লিউএইচও। বলা হচ্ছে, ইউরোপের ৫৩টি দেশের মধ্যে ২৫টি দেশেই করোনা পরিস্থিতি ‘অতিমাত্রায় উদ্বেগজনক’।

ইউরোপের অস্ট্রিয়া, ফ্রান্স, জার্মানিতে যে ভাবে করোনাভাইরাস ছড়াচ্ছে তা ঠেকাতে এখনও কার্যকর পদক্ষেপ দৃশ্যমান নেই। যদিও অস্ট্রিয়ায় আবারও লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছে। এদিকে, করোনা ঠেকাতে কঠোর বিধিনিষেধ মানতে নারাজ দেশগুলোর সাধারণ মানুষ। ফলে আন্দোলন-বিক্ষোভও অব্যাহত রয়েছে ইউরোপের কয়েকটি দেশে। ঘটেছে সহিংসতার ঘটনাও। আটকও হয়েছেন বেশ কয়েকজন।

এর আগে ডব্লিউএইচওর ইউরোপ প্রধান হ্যান্স ক্লুগ এক সংবাদ সম্মেলনে জানিয়েছিলেন, করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে আগামী ফেব্রুয়ারি নাগাদ ইউরোপে ৫ লাখ মানুষের মৃত্যু হতে পারে।

এ পরিস্থিতির জন্য তিনি অপর্যাপ্ত ভ্যাকসিন সরবরাহকে দায়ী করেছেন।

বিজ্ঞাপন