চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

করোনায় কমেছে আন্তঃব্যাংক লেনদেন, আমানত প্রবৃদ্ধি

করোনাভাইরাসের প্রভাবে কমে গেছে আন্তঃব্যাংক লেনদেন। মাত্র এক মাসের ব্যবধানে লেনদেন কমেছে ৩৫ দশমিক ৪৯ শতাংশ। এছাড়াও কমেছে আমানত প্রবৃদ্ধি।

ব্যাংক খাত সংশ্লিষ্টরা বলছেন, করোনাভাইরাস সংক্রমণের ভয়ে ব্যাংকে টাকা জমা দিতে যাননি গ্রাহকেরা। তাই ব্যাংকিং খাতের আমানতের পাশাপাশি এক ব্যাংক থেকে অন্য ব্যাংকে টাকা স্থানান্তর কমেছে।

বিজ্ঞাপন

বাংলাদেশ ব্যাংকের তথ্য অনুযায়ী, গত জুন মাসে এক ব্যাংক থেকে অন্য ব্যাংকে স্থানান্তর হয়েছে ২৮ হাজার ৯২৭ কোটি টাকা। কিন্তু মে মাসে এই লেনদেনের পরিমাণ ছিল ৪৪ হাজার ৮৪৩ কোটি টাকা। অর্থাৎ এক মাসের ব্যবধানে লেনদেন কমেছে ৩৫ দশমিক ৪৯ শতাংশ।

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

শুধু আন্তঃব্যাংক লেনদেনই নয়, ব্যাংকের আমানত প্রবৃদ্ধিও কমেছে। ব্যাংকে টাকা রেখে এখন আর আগের মত মুনাফা পাচ্ছেন না গ্রাহক। ঋণ বিতরণের ক্ষেত্রে সুদহার বেঁধে দেওয়ায় ব্যাংকে টাকা রাখার আগ্রহ কমেছে মানুষের। এ কারণে আমানত প্রবৃদ্ধি কমছে।

বাংলাদেশ ব্যাংকের তথ্যমতে, চলতি বছরের জুন শেষে আগের বছরের একই মাসের তুলনায় আমানত প্রবৃদ্ধি কম হয়েছে ১০ দশমিক ৯৪ শতাংশ। কিন্তু গত ডিসেম্বরেও এই প্রবৃদ্ধি ছিল সাড়ে ১২ শতাংশের উপরে।

জুন শেষে ব্যাংকিং খাতের মোট আমানতের পরিমাণ দাঁড়িয়েছে ১১ লাখ ৮১ হাজার ২৫ কোটি টাকা। আগের বছরের একই মাসে যা ছিল ১০ লাখ ৬৪ হাজার ৫৩৬ কোটি। সেই হিসেবে এক বছরের ব্যবধানে আমানত প্রবৃদ্ধি ১০ দশমিক ৯৪ শতাংশ।

২০১৯ সালের ডিসেম্বর শেষে ব্যাংকিং খাতের আমানত ছিল ১১ লাখ ৩৬ হাজার ৯৭৯ কোটি টাকা। যা আগের বছরের (২০১৮) একই সময়ের তুলনায় ১২ দশমিক ৫৭ শতাংশ বেশি।