চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

করোনার টিকায় সব ধরনের কর অব্যাহতি

করোনাভাইরাস প্রতিরোধী টিকা আমদানি এবং পরবর্তী সংরক্ষণ, বিপণন ও পরিবহনে এবং টিকাদান কর্মসূচির ফি থেকে মূল্য সংযোজন কর (উৎস মূসক কর্তনসহ) অব্যাহতি দিয়েছে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর)।

বুধবার এনবিআরের প্রথম সচিব (মূসক) কাজী ফরিদ উদ্দীন সই করা আদেশ সূত্রে এসব তথ্য জানা গেছে।

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

এর আগে গত ১৮ ফেব্রুয়ারি এনবিআরের অপর এক আদেশে যে কোনো ধরনের ভ্যাকসিন বা টিকা আমদানিতে প্রযোজ্য অগ্রিম আয়কর বা এআইটি প্রত্যাহারের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছিল।

আদেশে বলা হয়েছে, বর্তমানে করোনাভাইরাসের (কোভিড-১৯) প্রাদুর্ভাব প্রতিরোধে সরকার নানা ধরনের পদক্ষেপ নিয়েছে। বৈশ্বিক এ মহামারি মোকাবিলায় ইতোমধ্যে করোনা প্রতিরোধক বিভিন্ন সামগ্রীর পাশাপাশি কোডিড-১৯ নিরোধক টিকার আমদানি, উৎপাদন ও ব্যবসায়ের ক্ষেত্রে অব্যাহতি দেয়া হয়েছে। জনসাধারণের স্বাস্থ্য সুরক্ষা ও দেশের করোনা মহামারি মোকাবিলায় দুর্যোগকালীন পরিস্থিতিতে জনস্বার্থে এনবিআরের মূল্য সংযোজন কর ও সম্পূরক শুল্ক আইন, ২০১২ (২০১২ সালের ৪৭ নম্বর আইন) এর ধারা ১২৬ এর উপ-ধারা (৩) এ প্রদত্ত ক্ষমতাবলে কোভিড-১৯ নিরোধক টিকা আমদানি পরবর্তী সংরক্ষণ, বিপণন, পরিবহন, ডিস্ট্রিবিউশন এবং টিকাদান কর্মসূচির ফি এর ওপর প্রযোজ্য ভ্যাট (উৎসে ভ্যাটসহ) হতে শর্ত সাপেক্ষে অব্যাহতি দেয়া হলো।

শর্তাবলীর মধ্যে রয়েছে: কোভিড-১৯ নিরোধক টিকা শুধুমাত্র বাংলাদেশ সরকারকে সরবরাহের ক্ষেত্রে এ অব্যাহতি সুবিধা প্রযোজ্য হবে এবং কোভিড-১৯ নিরোধক টিকা সরবরাহ বাবদ পাওয়া টাকার যাবতীয় হিসাব বিবরণী অর্থপ্রাপ্তির ১০ কার্যদিবসের মধ্যে সংশ্লিষ্ট মূল্য সংযোজন কমিশনারেটকে অবহিত করতে হবে।