চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

করোনাভাইরাস: ১৭শ’ মানসিক রোগীকে ‘ভুল করে’ ছাড়পত্র

বৈশ্বিক করোনাভাইরাস মহামারীর এই সময়ে ১ হাজার ৭০০ মানসিক রোগীকে ভুলভাবে মুক্তি দেয়া হয়েছে যুক্তরাজ্যের নর্থ ওয়েলসের সহায়তা সেবাকেন্দ্র থেকে।

গত সপ্তাহে সেখানকার বেটসি কাডওয়ালাডা স্বাস্থ্য বোর্ড পরামর্শ দেয় এই মহামারী শেষ হলে মানসিক স্বাস্থ্য রোগীদের জন্য নতুন সুপারিশ খুঁজতে হবে।

তাদের অনুমান বলছে, এতে ২০০-৩০০ জন প্রভাবিত হয়েছে। কিন্তু সেখানকার রাজনৈতিক দল প্লেইড সিমরুর রাজনীতিবিদদের মতে, ভুলভাবে ছাড়পত্র পাওয়া মানসিক রোগীদের সঠিক সংখ্যাটা হচ্ছে ১ হাজার ৬৯৪ জন।

ওয়েলসের স্বাস্থ্য বোর্ড এই ঘটনায় ক্ষমা চেয়েছে এবং তারা রোগীদের সঙ্গে আবার যোগাযোগ করছে।

স্বাস্থ্য বোর্ডের অন্তর্বতীকালীন প্রধান নির্বাহী সাইমন ডিন গত সপ্তাহে বলেন, রোগীদের ছাড়পত্র দেওয়া এমন একটি ভুল যেটা হওয়া উচিত হয়নি। তার অনুমান ২০০-৩০০ মানুষ এতে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে কিন্তু তার টিম সঠিক সংখ্যাটা বের করতে কাজ করছে।

বিজ্ঞাপন

প্লেইড সিমরুর স্বাস্থ্য মুখপাত্র রুন আপ লরওয়ের্থ বলেন, মানসিক সেবার দরকার ছিলো এমন ১ হাজার ৬৯৪ রোগীকে ছেড়ে দেওয়ার ঘটনা খুবই হতাশাজনক। তাদের সবার সঙ্গে যোগাযোগ করে আবার তাদের ফিরিয়ে আনারে নিশ্চয়তাকে স্বাগত জানাই। কিন্তু স্বাস্থ্য বোর্ড এলাকাজুড়ে কিভাবে এমন একটা সিদ্ধান্ত নেওয়া হলো কীভাবে? কীভাবে নির্দশনার এমন অপব্যাখ্যা বিস্তৃত হয়ে পড়লো সেটাও বড় প্রশ্ন।

তিনি যোগ করেন, এমনটা মোটেও গ্রহণযোগ্য নয়। মানসিক স্বাস্থ্য সেবা পুনর্গঠনের জন্য দ্রুত বিনিয়োগ দরকার।

সাইমন ডিন বলেন, স্বাস্থ্য বোর্ডের প্রাথমিক মানসিক স্বাস্থ্য সেবা আগের মতোই সুপারিশ করছে। যাদের ছাড়পত্র দেওয়া হয়েছে তাদের সঙ্গে যোগাযোগ করা হচ্ছে যে তাদের কোন পর্যায়ের সমর্থন দরকার। এর কারণে তারা যে মর্মপীড়ায় পড়েছেন তার জন্য আমি দু:খিত।

পাঁচ বছর আগে মানসিক স্বাস্থ্যকে বিশেষ পদক্ষেপ হিসেবে নির্ধারণ করে ওয়েলস সরকার। তাদের মতে মহামারীর সময়ে মানসিক স্বাস্থ্য সেবা খুবই জরুরি।

শেয়ার করুন: