চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

করোনাভাইরাস: হাসপাতালগুলোতে রোগীদের দ্রুত চিকিৎসার আহ্বান

দেশের সকল সরকারি ও বেসরকারি হাসপাতালগুলোতে বিভিন্ন রোগে আক্রান্ত রোগীদের দ্রুত চিকিৎসা নিশ্চিত করার আহ্বান জানিয়েছে আত্মদায়বদ্ধ সামাজিক সংগঠন প্রজন্মের চেতনা।

মঙ্গলবার বিকালে গণমাধ্যমে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এসব জানায় সংগঠনটি।

বিজ্ঞাপন

সংবাদ বিবৃতিতে বলা হয়, দেশের সর্বত্র এখন চিকিৎসাব্যবস্থায় হযবরল অবস্থা চলছে। করোনাভাইরাসের প্রভা পড়েছে রাজধানীসহ দেশের বিভিন্ন সরকারি-বেসরকারি হাসপাতালে। যার ফলে হাসপাতাল ও ক্লিনিকগুলোতে অন্যান্য রোগের সব চিকিৎসা প্রায় বন্ধই হয়ে গেছে। এখন হাসপাতাল আর ক্লিনিকগুলো প্রায় রোগীশূন্য। করোনা ছাড়া বিভিন্ন রোগে আক্রান্ত হয়ে যারা হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন, চিকিৎসাসেবা না পেয়ে তারাও হাসপাতাল ছাড়ছেন। এমনকি এই সময় অনেক বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের চেম্বার বন্ধ থাকায় সেখানেও সাধারণ রোগীরা সেবা নিতে পারছেন না। তাই দেশের এই বিরাজমান পরিস্থিতিতে রোগী ও তার পরিবার-পরিজনরা উদ্বেগ আর উৎকন্ঠার মধ্যে দিন কাটাচ্ছেন।

বিজ্ঞাপন

দেশের গণমাধ্যমগুলোতে প্রতিদিনই খবর আসছে, চিকিৎসক ও নার্স আর হাসপাতাল এবং ক্লিনিক কর্তৃপক্ষের অবহেলায় অনেক রোগী এক হাসপাতাল থেকে আরেক হাসপাতাল ঘুরে শেষ পর্যন্ত চিকিৎসা না পেয়ে মৃত্যুবরণ করেছেন। অথচ করোনাভাইরাসের অজুহাতে চিকিৎসক ও নার্সদের একটি বড় অংশ সব ধরনের চিকিৎসাসেবা থেকে নিজেদের বিরত রেখেছেন। বিষয়টি জেনে প্রধানমন্ত্রী চিকিৎসক নেতাদের সঙ্গে আলোচনা করে সব চিকিৎসককে রোগীদের প্রয়োজনীয় সেবা প্রদানের নির্দেশ দেন। তারপরেও প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশ অমান্য করে যে সমস্ত হাসপাতাল ও ক্লিনিক মালিকসহ চিকিৎসক এবং নার্সরা রোগীদের চিকিৎসাসেবা থেকে বঞ্চিত করছেন, তাদের জবাবদিহিতা নিশ্চিত করার স্বার্থেই সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে দ্রুত বিষয়টি খতিয়ে দেখা দরকার।

এমনকি দেশের বিশেষজ্ঞরা বলেছেন, ‘বর্তমান সময়ে কোভিড-১৯-এ আক্রান্ত হয়ে যত মানুষের মৃত্যু হয়েছে, তার চেয়ে বেশি মানুষের মৃত্যু হয়েছে অন্যান্য রোগে আক্রান্তদের প্রয়োজনীয় চিকিৎসা না দেয়ার কারণে।’ অথচ বহু সংগ্রাম, ত্যাগ-তিতিক্ষা ও আত্মদানের বিনিময়ে অর্জিত আমাদের এই স্বাধীন বাংলাদেশ আর জাতির জনক বিশ্ববন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবর্ষে যা কোনোভাবেই কাম্য হতে পারে না।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়, বিরাজমান এই পরিস্থিতিতে দেশের চিকিৎসাব্যবস্থায় যা চলছে, তা কোনোভাবেই মেনে নেয়া যায় না স্বাধীন দেশের নাগরিক হিসেবে। রোগকে আমলে না নেয়া পেশাগত দায়িত্বেরই বরখেলাপ। এই স্বাধীন বাংলাদেশের সংবিধানে সুস্পষ্ট উল্লেখ আছে চিকিৎসাসেবা পাওয়া প্রত্যেকটি মানুষের মৌলিক অধিকার। এ অধিকার থেকে রোগীদের বঞ্চিত করা অপরাধের পর্যায়ে পড়ে। তাই যাদের অপেশাদারী আচরণের কারণে যে সমস্ত রোগী মৃত্যু হয়েছে বা যারা চিকিৎসাসেবা থেকে বঞ্চিত হয়েছেন, তাদের সকলের বিরুদ্ধেই সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে। একই সাথে দেশের সকল সরকারি-বেসরকারি হাসপাতালে বিভিন্ন রোগে আক্রান্ত রোগীদের দ্রুত চিকিৎসা নিশ্চিত করা। চিকিৎসাসেবার সঙ্গে জড়িত সংশ্লিষ্টদের প্রতি আমাদের আবেদন থাকবে, কোভিড-১৯ রোগের যেমন, তেমন অন্য সব রোগের চিকিৎসার ব্যাপারেও তারা আন্তরিক হবেন। নিশ্চয় মানুষের অসহায়ত্বে তাদের পাশে দাঁড়ানো এক মহৎ কাজ।