চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

করোনাভাইরাস: যুক্তরাষ্ট্রকে শুরু থেকেই সতর্ক করা হয়

দাবি ডব্লিউএইচও’র

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও) আবারো জোর দিয়ে বলেছে, প্রথম থেকেই সবাইকে কোভিড-১৯ সম্পর্কে সতর্ক করা হয়েছিল। যুক্তরাষ্ট্রের কাছে কোনো কিছুই লুকানো হয়নি।

চীনে শুরু হওয়া এই মহামারিকে ডব্লিউএইচও প্রথমে তেমন গুরুত্ব দেয়নি বলে যুক্তরাষ্ট্র অভিযোগ করে আসছে।

বিজ্ঞাপন

তারই পরিপ্রেক্ষিতে সংস্থাটির প্রধান টেডরস এডহানম গেব্রিয়েসিস বলেছেন, জাতিসংঘের এ সংস্থায় গোপনীয়তার কিছুই নেই।

স্থানীয় সময় সোমবার জেনেভা থেকে ভার্চুয়াল বৈঠকে তিনি বলেন, আমরা প্রথম দিন থেকেই করোনাভাইরাসের ভয়াবহতার বিষয়ে সতর্ক করে আসছি এবং বলেছি প্রত্যেকেরই লড়াই করা উচিত।

গত বছরের ডিসেম্বরে চীনের উহানে শুরু হওয়া এই করোনাভাইরাসে বিশ্বের ২৫ লাখেরও বেশি মানুষ আক্রান্ত হয়েছে। মারা গেছে ১ লাখ ৭০ হাজারেরও বেশি।

বিজ্ঞাপন

এর মধ্যে যুক্তরাষ্ট্রে সবচয়ে বেশি ৪০ হাজারেরও বেশি লোক মারা গেছে। দেশটির প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প করোনাভাইরাস মোকাবেলায় তার গৃহীত পদক্ষেপের কারণে সমালোচিত হচ্ছেন।

ডব্লিউএইচওর সবচেয়ে বড় দাতা দেশ যুক্তরাষ্ট্র সংস্থাটির বিরুদ্ধে অব্যবস্থাপনা ও চীনমুখী হওয়ার অভিযোগ এনে তহবিল বন্ধ করে দিয়েছে।

ডব্লিউএইচও বলেছে, যুক্তরাষ্ট্রের স্বাস্থ্য সুরক্ষা সংস্থা সেন্টার্স ফর ডিজিজ কন্ট্রোল এন্ড প্রিভেনশন (সিডিসি) এর ১৫ জন স্টাফ কোভিড-১৯ মোকাবেলায় সংস্থাটির সঙ্গে কাজ করছে।

টেডরস বলেন, এর মানে প্রথম দিন থেকেই যুক্তরাষ্ট্রের কাছে কোনো কিছুই গোপন নেই। কারণ, আমেরিকানরা আমাদের সঙ্গে কাজ করছে।

তিনি আরও বলেন, ডব্লিউএইচও উন্মুক্ত। আমরা কিছুই লুকিয়ে রাখিনি। কেবল সিডিসি’র জন্যেই নয়, আমরা সকল দেশকেই অবিলম্বে বার্তা দিয়েছি। যাতে দেশগুলো দ্রুত ও ভাল প্রস্ততি নিতে পারে।