চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

করোনাভাইরাস: যুক্তরাজ্যে মৃতের প্রকৃত সংখ্যা আরও বেশি হওয়ার শঙ্কা

করোনাভাইরাস এ আক্রান্ত ইউরোপীয় দেশগুলোর মধ্যে অন্যতম যুক্তরাজ্য। অসংখ্য মানুষ আক্রান্ত হয়েছেন ও মৃত্যু হয়েছে অনেকের। তবে দেশটিতে মৃতের পরিসংখ্যান যে পাবলিক হেলথ ইংল্যান্ড (পিএইচই) প্রকাশ করে, তাদের প্রতিবেদন নতুন করে পর্যালোচনা করা হলে তার চেয়ে বেড়ে যাবে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে৷

এ বিষয়ে বিভিন্ন পরিসংখ্যানবিদ ও বিশেষজ্ঞের সন্দেহ ও উদ্বেগ প্রকাশের পর ব্রিটিশ সরকার পরিসংখ্যান পর্যালোচনার জন্য মৃতের সংখ্যা সম্পর্কে প্রতিদিনের হালনাগাদে বিরতি দিয়েছে। এতে করে মৃতের সংখ্যা আগের তুলনায় বাড়তে পারে বলে জানানো হয়েছে রয়টার্সের প্রতিবেদনে৷

বিজ্ঞাপন

বিশেষজ্ঞরা উদ্বেগ প্রকাশ করে বলেছিলেন, সার্বিকভাবে মৃত্যুর সংখ্যা নির্ধারণের জন্য পাবলিক হেলথ ইংল্যান্ডের গণনা পদ্ধতি দুর্বল। যাদের কখনও পরীক্ষা করা হয়নি, কিন্তু কোভিডে মারা গেছে, তারা এই তালিকার বাইরে থেকে যাচ্ছে।

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

শুরুর দিকে কোভিড-১৯-এর পরীক্ষা সীমিত থাকার ফলে হাসপাতালের বাইরে যারা আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন, যাদের পরীক্ষাই হয়নি তাদের একটা বড় সংখ্যা এই পরিসংখ্যানে আসেনি।

বিশেষজ্ঞরা বলেন, কোভিড-১৯ পজিটিভ হওয়ার পর যদি কেউ চিকিৎসায় সুস্থ হওয়ার তিন মাস পর হার্ট অ্যাটাক বা বাসায় মারা যায়, তবু তাদেরকে করোনাভাইরাস এর কারণে মৃত হিসেবে গণ্য করতে হবে৷ এ ধরনের বহু কারণে অনেক মৃতের সংখ্যা পরিসংখ্যানে আসেনি।

বিশেষজ্ঞদের এমন দাবি ও উদ্বেগের পর ব্রিটিশ সরকার আমলে নিয়েছে। দেশটির স্বাস্থ্যমন্ত্রী শুক্রবার পাবলিক হেলথ ইংল্যান্ডের প্রতিবেদন পর্যালোচনার নির্দেশ দিয়েছেন।

আন্তর্জাতিক হিসাব অনুযায়ী, যুক্তরাজ্যে করোনায় মৃতের সংখ্যা ৪৫ হাজার৷ কিন্তু পরিসংখ্যান পর্যালোচনার পর তার পরিবর্তন হতে পারে। ব্রিটিশ কর্তৃপক্ষও বিষয়টি গুরুত্ব দিচ্ছে।