চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

করোনাভাইরাস: মধ্যবিত্ত ও নিম্ন মধ্যবিত্তদের পাশে স্কুল ফ্রেন্ডস নেটওয়ার্ক

১২৫টি পরিবারকে দশদিনের নিত্য প্রয়োজনীয় খাদ্য সামগ্রী প্রদান

বৈশ্বিক মহামারী কোভিড-১৯ এর প্রার্দুভাবে দেশজুড়ে চলছে সরকার ঘোষিত সাধারণ ছুটি। এ অবস্থায় দেশের সবশ্রেণির মানুষের সমস্যা হলেও সব থেকে বেশি বিপাকে পড়েছে মধ্যবিত্ত এবং নিম্ন মধ্যবিত্তরা।

সুবিধাবঞ্চিতরা সরকারসহ নানা ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠান থেকে সহায়তা পেলেও মধ্যবিত্তরা তা থেকে বঞ্চিত। এই শ্রেণির মানুষ লোকলজ্জার ভয়ে কাউকে কিছু বলতেও পারছেন না। এমন মধ্যবিত্ত ও নিম্ন মধ্যবিত্ত মানুষের পাশে এসে দাঁড়িয়েছে টাঙ্গাইলের বিভিন্ন বিদ্যালয়ের ২০০২ সালের ব্যাচের সাবেক শিক্ষার্থীরা।

বিজ্ঞাপন

স্কুল ফ্রেন্ডস নেটওয়ার্ক (এসএফএন-০২) নামে গ্রুপের মাধ্যমে শিক্ষার্থীরা তাদের সামর্থ্য অনুযায়ী অর্থ সহায়তা দেয়ার পর ১২৫টি পরিবারের দশদিনের নিত্য প্রয়োজনীয় খাদ্য সামগ্রী ও ওষুধ কিনে তাদের বাড়িতে পৌঁছে দেয়া হয়।

স্কুল ফ্রেন্ডস নেটওয়ার্কের শিক্ষার্থীরা চ্যানেল আই অনলাইনকে বলেন, ‘‘আমরা বন্ধুরা যে কোন দুর্যোগেই এলাকার মানুষের পাশে দাঁড়াই। যেহেতু করোনাভাইরাসে পুরো বিশ্বই আজ বিপর্যস্ত, দেশে সরকারের ঘোষিত সাধারণ ছুটি চলছে, তাই আমরা বন্ধুরা মিলে সিদ্ধান্ত নিয়েছিলাম এই দুর্যোগে মধ্যবিত্ত ও নিম্ন মধ্যবিত্ত শ্রেণির মানুষের পাশে আমরা দাঁড়াবো। কারণ তারা চক্ষুলজ্জার কারণে নিজেদের অভাবের কথা বলতে পারেন না। মধ্যবিত্ত ও নিম্ন মধ্যবিত্ত মানুষগুলো যেন অভুক্ত না থাকে তাই এই উদ্যোগ নেয়া।’’

বিজ্ঞাপন

চীনের উহান থেকে ছড়িয়ে পড়া করোনাভাইরাসে বিশ্বের ২১০টি দেশ ও অঞ্চলে এখন পর্যন্ত কমপক্ষে ১৬ লাখের বেশি মানুষ আক্রান্ত হয়েছেন। এদের মধ্যে মারা গেছেন প্রায় এক লাখ এক হাজার ৪৮৩ জন। তবে সুস্থ হয়ে ঘরে ফিরেছেন ৩ লাখ ৭১ হাজারের বেশি মানুষ।

সরকারের সরকারের রোগতত্ত্ব, রোগনিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠান (আইইডিসিআর) জানিয়েছে দেশে এখন পর্যন্ত ৪৮২ জন কোভিড-১৯ এর নমুনা পরীক্ষায় আক্রান্ত শনাক্ত হয়েছেন। এখন পর্যন্ত দেশে ৩০ জনের প্রাণহানি ঘটেছে। সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ৩৬ জন।

করোনাভাইরাসের বিস্তার ঠেকাতে প্রথমে ২৬ মার্চ থেকে ৪ এপ্রিল পর্যন্ত সাধারণ ছুটি ঘোষণা করে সরকার। পরে এই ছুটি ১১ এপ্রিল পর্যন্ত বাড়ানো হয়। রোববার এ ছুটির মেয়াদ ১৪ এপ্রিল পর্যন্ত বাড়ানো হয়েছে। করোনার সংক্রমণ ঠেকাতে পরে ২৫ এপ্রিল পর্যন্ত সাধারণ ছুটি ঘোষণা করে সরকার।

ছুটির সময়ে অফিস-আদালত থেকে গণপরিবহন, সব বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। কাঁচাবাজার, খাবার, ওষুধের দোকান, হাসপাতাল, জরুরি সেবা এই বন্ধের বাইরে থাকছে। জনগণকে ঘরে রাখার জন্য মোতায়েন রয়েছে সশস্ত্র বাহিনীও।