চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

করোনাভাইরাসে আরও এক পুলিশ সদস্যের মৃত্যু

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হলো আরও এক পুলিশ সদস্যের। নিহত পুলিশ সদস্য এসআই নাজির উদ্দিন (৫৫)। তিনি স্পেশাল ব্রাঞ্চের প্রতিরক্ষা শাখায় কর্মরত ছিলেন।

শুক্রবার সকালে রাজারবাগের কেন্দ্রীয় পুলিশ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।

বিজ্ঞাপন

রাজারবাগ কেন্দ্রীয় হাসপাতালের সুপার হাসান উল হায়দার জানান, গত ২৫ এপ্রিল এসআই নাজির উদ্দিনের করোনা ধরা পড়ে। এছাড়া তিনি অ্যাজমা ও হাইপারটেনশনের ভুগছিলেন। শুক্রবার সকাল ৮ টার দিকে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান।

পুলিশ সদর দপ্তরের সহকারী মহাপরিদর্শক (এআইজি) সোহেল রানা জানান, করোনা ভাইরাস প্রতিরোধের সম্মুখযোদ্ধা হিসেবে দায়িত্ব পালনকালে করোনাক্রান্ত হয়ে প্রাণ দিলেন এসআই নাজির উদ্দিন। তিনি এসবির প্রতিরক্ষা শাখায় কর্মরত ছিলেন।

তার নামাজে জানাজা শুক্রবার সকালে রাজারবাগে অনুষ্ঠিত হয়েছে। জানাজা শেষে পুলিশের ব্যবস্থাপনায় মরহুমের মরদেহ গ্রামের বাড়িতে পাঠানো হয়েছে। সেখানে জেলা পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা ও পুলিশ সদস্যদের উপস্থিতিতে ধর্মীয় বিধান অনুযায়ী মরদেহ দাফন করা হবে।

বিজ্ঞাপন

জানা যায়, নাজির উদ্দিন পাবনা জেলার ভাঙ্গুরা থানাধীন কাজীটোলা গ্রামের বাসিন্দা। ১৯৬৫ সালের ১ জানুয়ারি জন্মগ্রহণ করা নাজির উদ্দিন ১৯৮৩ সালের ২৫ সেপ্টেম্বর পুলিশ বাহিনীতে যোগ দেন।

উল্লেখ্য, এ নিয়ে বাংলাদেশ পুলিশের ৪ সদস্য করোনা যুদ্ধে আত্মোৎসর্গ করলেন।

এর আগে বৃহস্পতিবার করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে রাজধানীতে কোয়ারেন্টাইনে থাকা এক কর্মকর্তাসহ ২ পুলিশ সদস্যের মৃত্যু হয়।

নিহতদের একজন ডিএমপি পাবলিক অর্ডার ম্যানেজমেন্ট দক্ষিণ বিভাগে কর্মরত এসআই আব্দুল খালেক। অন্যজন ডিএমপি ট্রাফিক উত্তর বিভাগের কনস্টেবল আশেক মাহমুদ।

মঙ্গলবার রাতে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে জসিম উদ্দিন (৪০) নামের একজন পুলিশ কনস্টেবল মারা যান। জসিম উদ্দিন ওয়ারী পুলিশ বিভাগে কর্মরত ছিলেন। ওয়ারী ফাঁড়িতে দায়িত্ব পালনের সময় তিনি করোনাভাইরাসে সংক্রমিত হন।

বাংলাদেশে করোনাভাইরাসে মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৭৬৬৭ জন। প্রাণ হারিয়েছে ১৬৮ জন।