চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

করোনাকালে সাইকেলকে যাতায়াতের মাধ্যম করতে ভারত সরকারের পরামর্শ

ভারতে দিন দিন করোনাভাইরাসের সংক্রমণ বাড়ায় চিন্তিত ভারতের কেন্দ্রীয় সরকার এবং রাজ্য সরকারগুলো। সংক্রামকরোগ থেকে বাঁচার প্রধান উপায় হলো সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা। কিন্তু ভারতের মতো জনবহুল দেশে তা প্রায় অসম্ভব।

এই অবস্থায় কেন্দ্রীয় সরকারের নগর উন্নয়ন মন্ত্রণালয় মনে করছে, দেশের মানুষের দৈনন্দিন চলাচলের ক্ষেত্রে সাইকেলের ওপর নির্ভরতা বৃদ্ধি করা উচিত। দুই চাকার এই যানে একদিকে যেমন সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা যাবে, তেমনি তা ব্যয় কমাবে এবং গণপরিবহনের ব্যবহারও কমাবে। এতে পরিবেশ দূষণ কমবে। তাই কেন্দ্রীয় সরকারের পক্ষ থেকে রাজ্য সরকারগুলোকে সাইকেল ব্যবহারের জন্যে সাধারণ মানুষকে উৎসাহিত করার ব্যাপারে বার্তা দেওয়া হয়েছে।

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

রাজ্যগুলোকে সাইকেলের ব্যবহারে সাধারণ জনগণকে আগ্রহী করে তোলার জন্যে বেশ কিছু উদাহরণও দেখিয়েছে ভারত সরকার।

বিজ্ঞাপন

যেমন, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্কে শুধুমাত্র সাইকেলের মাধ্যমে চলাচল করার জন্যে নতুন ৪০ মাইলের এক রাস্তা খুলে দেওয়া হয়েছে। অকল্যান্ড যেমন ১০ শতাংশ রাস্তায় সাইকেল ছাড়া অন্য কোনো গাড়ি চলাচল নিষিদ্ধ করে দিয়েছে। কলম্বিয়ার বোগোটায় রাতারাতি অতিরিক্ত ৭৬ কিলোমিটার পথ খুলে দেওয়া হয়েছে যেখান থেকে শুধু সাইকেলেই চলাচল করা সম্ভব হবে।

ভারত সরকারের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, সাধারণত শহরাঞ্চলের মানুষজনকে কাজের প্রয়োজনে গড়ে ৫ কিলোমিটার দূরত্ব পর্যন্ত যাতায়াত করতে হয়। এই জাতীয় পরিস্থিতিতে কোভিড -১৯ সংক্রমণ থেকে বাঁচতে আরো বেশি করে সাইকেলের মতো যানবাহনের ব্যবহার বাড়ানো উচিত। কারণ এখন যতটা কম খরচে মানুষের প্রাণ বাঁচানো সম্ভব হয় সেটার দিকেই লক্ষ্য রাখতে হবে।