চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

‘কফিল আহমেদের সন্তুষ্টির তার টা একটু উঁচুতে বাঁধা’

জুন মাসে ‘মাসানোবোফুকোওকা’র পর চলতি মাসেই স্টুডিও কাউবেল থেকে আসছে কফিল আহমেদের গান ‘একটা বাছুর’

কবি ও গায়ক তিনি। শিল্প সত্তার এক বিস্তৃত জাল বিছিয়ে নিভৃতে হেঁটে চলেন। মানুষটির নাম কফিল আহমেদ। গানে কথায় গণমানুষের কথা বলেন, প্রাণপ্রকৃতির কথা বলেন। গেল জুন মাসে ‘স্টুডিও কাউবেল’ এর ইউটিউব চ্যানেল থেকে প্রকাশিত হয় তার গান ‘মাসানোবোফুকোওকা’। মানুষের কাছে গানটি প্রশংসা পায়। একই চ্যানেল থেকে চলতি মাসেই আসছে ‘একটা বাছুর’ শিরোনামে আরো একটি গান। একইভাবে এখানে পর পর কফিল আহমেদের মোট নয়টি গান রিলিজের প্রস্তুতি চলছে।

কফিল আহমেদের বেশকিছু গানের সংগীতায়োজন করছেন রাশিদ শরীফ শোয়েব। একই সঙ্গে তিনি স্টুডিও কাউবেলের কর্ণধার। কফিল আহমেদের সঙ্গে তার বোঝাপড়া ও গানগুলো নিয়ে চ্যানেল আই অনলাইনের সাথে কথা বলেছেন এই সংগীত পরিচালক:

‘মাসানোবোফুকোওকা’র পর কফিল আহমেদের আরো একটি গান রিলিজের ঘোষণা দিলেন। গানটি কবে আসছে?
স্টুডিও কাউবেল থেকে কফিল দা’র দ্বিতীয় গানটি আশা করছি এ মাসেই রিলিজ দিতে পারব। প্রথম গানটা যেভাবে রিলিজ করেছিলাম, একই ফরম্যাটে এই গানটিও রিলিজ দেয়ার প্রক্রিয়া চলছে। মানে পেইন্টিং সহ যে ভিডিওটা দেখেছি, আমাদের বন্ধু সোহাগ হাবিব- ‘‘মাসানোবোফুকোওকা’র একটা ছবি এঁকেছিলেন থিম বেইজ। আমাদের দ্বিতীয় গানের নাম ‘একটা বাছুর’- এই গানটি একইভাবে রিলিজ দিবো। তো ছবি আঁকার কাজটা চলছে, একদম শেষ পর্যায়ে আছে। ছবির জন্য আসলে আমরা অপেক্ষা করছি, ওটা শেষ হলেই দ্বিতীয় গানটিও শিগগির রিলিজ করব।

বিজ্ঞাপন

গানের রেকর্ডিং কি শেষ?
গানের রেকর্ডিং অনেক আগেই শেষ করেছি। শুধু ছবিগুলো পেলেই ভিডিও সম্পাদনার কাজ শেষ করে রিলিজ দিবো।

দীর্ঘ দিন পর গাইলেন কফিল আহমেদ। উনাকে রাজি করালেন কীভাবে?
রাজি করানোর বিষয় ছিল না আসলে। কফিল ভাইয়ের সাথে আমার এই জার্নিটা অনেক দিনের। আমার মনে আছে ২০১৪ সালের সেপ্টেম্বরের কোন একটা সময়, আমি কফিল দা’র সাথে তার গান রেকর্ড করার প্ল্যানটা শেয়ার করি। মানে আজ থেকে ছয় বছর আগের পরিকল্পনা! অবশ্য এরও অনেক আগে থেকেই কফিল দার সাথে আমার বোঝাপড়া। সময় কাটতো আড্ডায় কিংবা গান ভাবনায়। মানে আমাদের পারস্পরিক বোঝাপড়ার জায়গাটা তৈরি হচ্ছিল যখন, আমার ধারণা আমার মিউজিক্যাল ভাবনার সাথে কফিল দা এক ধরনের কানেক্ট করতে পারতেন। এসব থেকেই আসলে ২০১৪ সালে আমরা একটা অ্যালবাম করার প্ল্যান করি, রেকর্ডিং ও শুরু করেছিলাম। চলতি মাসে কফিল দা’র ‘একটা বাছুর’ নামে যে গানটা রিলিজ হবে, এই গানটা দিয়ে আমাদের প্রথম রেকর্ডিং ছিল। এরপর দ্রুত সময় বদলে যায়, অ্যালবাম কনসেপ্ট হারিয়ে যায়।

দীর্ঘদিন আগের পরিকল্পনা এখন এসে কার্যকর হচ্ছে। উনার অনুভূতি কেমন?
আমি কফিল দা‘র দর্শনের একজন অনুসারী। স্বাভাবিকভাবেই ভাবনাগত জায়গাতে আমাদের অনেক মিল ছিল। তার যে সর্বপ্রাণবোধের ভাবনার জায়গা, আমি তাকে শ্রদ্ধা করি। কফিল দা’কে বুঝতে পারা, তার দর্শন, তার গান শুনে ধারণ করা- পারস্পরিক সমঝোতার বিষয় থেকেই এমন উদ্যোগ নিয়েছিলাম আসলে। উনার সন্তুষ্টির তার টা একটু উঁচুতে বাঁধা।  কফিল আহমেদের গানে যে দর্শন, যে জীবনবোধের কথা বরাবরই থাকে ‘মাসানোবোফুকোওকা’তেও সেটা প্রতিফলিত। প্রকাশের প্রতীক্ষায় থাকা ‘একটা বাছুর’ নামের গানটি এরকম থিম বেইজ কিনা?
কফিল দা’র গান যদি কেউ শোনেন সেই প্রথম এলবাম থেকে, কিংবা এক বসায় উনার কয়েকটা গান পর পর যদি কেউ শোনেন, তাহলে তার সম্পর্কে পরিষ্কার একটা ধারণা পেয়ে যাবেন। দেখবেন যে তার গানে তার দর্শন, তার রাজনীতি এবং তার অনুভূতি খুঁজে পাবেন। ‘মাসানোবোফুকোওকা নিয়ে অনেকের একটা ধারণা কাজ করে যে জাপানী কৃষক মাসানোবোফুকোওকা নিয়ে কফিল আহমেদ একটা গান করেছেন। কিন্তু কফিল আহমেদের ভাষ্যতে ‘মাসানোবোফুকোওকা’ একটা রব বা ধ্বনি হিসেবে ব্যবহৃত হয়েছে গানটিতে।

একটা বাছুর নিয়ে যদি বলি, গানের মূল ভাবনার জায়গাটা হল কফিল দা’র সর্বপ্রাণবোধের যে দর্শন। মানে মানুষের সাথে প্রকৃতির অন্যান্য প্রাণের যে সম্পর্ক, সেটাই আসলে উঠে আসবে এই গানে। তিনি মনে করেন সামগ্রিকভাবেই সবকিছুই পৃথিবীর জন্য প্রয়োজন। এই যে এই মুহূর্তে কুকুরগুলোকে যে ঢাকা শহর ছাড়া করা হচ্ছে, নগর সভ্যতার অন্যান্য প্রাণ গুলোকে যেভাবে দিনে দিনে বিলুপ্তির দিকে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে- এসবই কফিল দা আসলে তার গানগুলোতে বা স্পেসিফিক্যালি যদি বলি ‘একটা বাছুর’ গানটাতে সেই ভাবনাগুলোর কথাই বলতে চেয়েছেন। তিনি বলতে চান মানুষের জীবনের জন্যই আসলে প্রাণ-প্রকৃতি জরুরী। মোটাদাগে ‘একটা বাছুর’ মানে আবহমান বাংলার রাখালের সাথে একটা বাছুরের যে সম্পর্ক যে ভালোবাসা, সেই ভালবাসার উপরে ভিত্তি করে একটা শোকের গল্প বলা। যদি সরলীকরণ করে বলি আর কি। আর শ্রোতারা যদি গানটির ভেতর আরো একটু মগ্ন হন, তাহলে আরও গভীর কিছু হয়তো তারা আবিষ্কার করবেন।

আপনার সংগীতায়োজনে আরেকটি গান করছেন তানযীর তুহিন, ওটার কী খবর?
ওই গানটাও আগের পরিকল্পনা। সঙ্গত কারণেই এই গানটি নিয়ে বেশি কিছু বলছি না। তবে এটুকু বলি, ওই গানটা নিয়েও কাজ চলছে, হয়তো অক্টোবরের মাঝামাঝিতে রিলিজ পাবে। চলতি সপ্তাহেই ওই গানটির ভিজ্যুয়াল নিয়ে কাজ শুরু করবো।