চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

‘কণ্ঠ’র মালিকানা অর্ধেকটা বাংলাদেশের!

ইমপ্রেস টেলিফিল্মের পরিবেশনায় সাফটা চুক্তির মাধ্যমে শুক্রবার দেশের ২২টি প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পেল ভারতীয় বাংলা ছবি ‘কণ্ঠ’। মুক্তির আগে রাজধানীর বসুন্ধরার স্টার সিনেপ্লেক্সে হয়ে গেলো প্রিমিয়ার শো। যেখানে উপস্থিত ছিলেন অভিনেত্রী জয়া আহসান ও ছবির দুই পরিচালিক শিবপ্রসাদ-নন্দিতা রায়।

প্রিমিয়ার অনুষ্ঠানে আমন্ত্রিত ছিলেন বাংলাদেশের চলচ্চিত্র সংশ্লিষ্ট মানুষ ও গণমাধ্যম কর্মীরা। তবে বিশেষভাবে আমন্ত্রণ জানিয়ে এই শো’তে নিয়ে আসা হয়েছিলো ক্যানসার বিশেষজ্ঞ, চিকিৎসক ও ক্যানসার আক্রান্ত রোগীদের। যেহেতু ‘কণ্ঠ’ ছবিটির মূল উপজীব্য একজন ক্যানসার আক্রান্ত রোগীকে ঘিরে।

বিজ্ঞাপন

ছবি শুরুর আগে ‘কণ্ঠ’ নিয়ে দর্শকদের উদ্দেশ্যে কথা বলেন ছবির দুই নির্মাতা ও জয়া আহসান। সেসময় তিনি তার বক্তব্যে মজা করে ‘কণ্ঠ’র অর্ধেক মালিকানা বাংলাদেশের বলে দাবি করেন।

বিষয়টি পরিষ্কার করে জয়া বলেন, কণ্ঠ ছবিতে আমি বাংলাদেশের একজন মেয়ের চরিত্রেই অভিনয় করেছি। ছবিতে স্পিচ থেরাপিস্ট হিসেবে রমিলা চরিত্রে আমাকে দেখা যাবে। আর এই হিসেবে এই ছবির অর্ধেক মালিকানা বাংলাদেশেরও! জয়ার এমন কথায় পাশে থেকে মাথা নাড়িয়ে সম্মতি জানান শিবপ্রসাদ ও নন্দিতা রায়।

পুরোপুরি হাউজফুল ছিলো ‘কণ্ঠ’র প্রিমিয়ার শো। এসময় বাংলাদেশের বরেণ্য বহু গুণী নির্মাতা, অভিনেতাসহ গণমাধ্যমের গুণীজনদেরও দেখা গেছে। তারা প্রত্যেকেই ছবিটির প্রশংসা করেন। অনেকে তাদের মন্তব্যে বলেন, ‘এটি একটি সিনেমার চেয়েও বেশী কিছু!’

বিশেষ করে এই ছবিতে জয়া আহসানের অভিনয়ের প্রশংসা করে প্রত্যেকে। ছবি শেষ হওয়ার পর কড়তালিতে মুখর ছিলো পুরো হল রুম।

এদিকে ছবি মুক্তি উপলক্ষ্যে শুক্রবার সকাল থেকেই ছুটছেন জয়া আহসান। সঙ্গে আছেন দুই নির্মাতা শিবপ্রসাদ ও নন্দিতা রায়। জয়া জানিয়েছেন, শুক্রবার সারাদিন ঢাকা শহরের প্রত্যেকটি সিনেপ্লেক্স ও সিনেমা হল প্রদর্শন করবেন।


এরআগে কণ্ঠ ছবিটি নিয়ে চ্যানেল আই অনলাইনকে জয়া জানিয়েছিলেন: ‘কণ্ঠ’ ছবিটি আমার জন্য একটি জার্নির মতো। জীবনকে কাছ থেকে দেখা, লড়াই করে বেঁচে থাকা মানুষগুলোকে দেখা, কী যে অনুপ্রেরণার ছিলো আমার জন্য! আমাকে এমন একটি যাত্রায় সামিল করায় আমি কৃতজ্ঞতা জানাই নির্মাতা শিবপ্রসাদ ও নন্দিতা দিদিকে। আমার উপর ভরসা করেছেন তারা, এটা আমার জন্য গর্বের।

এই চরিত্রটি তার ক্যারিয়ারে উজ্জ্বল হয়ে থাকবে। এমন আশাবাদ ব্যক্তি করে জয়া বলেছিলেন: জীবনে প্রচুর চরিত্রে অভিনয় করেছি। কিন্তু সব সময়ইতো সব চরিত্র গুরুত্বপূর্ণ বা দাগ কেটে যায় না, আবার কিছু চরিত্র আছে যেগুলো থেকে যায়, মনে গেঁথে যায়। শিল্পীর জীবনেও আঁচড় কেটে যায়। ‘কণ্ঠ’ ছবিতে ঠিক তেমন একটি চরিত্র আমার। আমার ভীষণ আত্মতৃপ্তি রয়েছে এই চরিত্রটি করে, এই ছবিতে অভিনয় করে।

চলতি বছরের মে মাসে ভারতে মুক্তি পেয়েছিলো ‘কণ্ঠ’। মুক্তির এগারো দিনেই ছবিটি আয় করে ২ কোটি রুপির বেশি। পশ্চিম বঙ্গে এখনো একাধিক প্রেক্ষাগৃহে চলছে ছবিটি। শুধু তাই নয়, মালায়ালাম ভাষাতেও রিমেক হচ্ছে ‘কণ্ঠ’।

একজন বাচিক শিল্পীর (রেডিও জোকি) দুরারোগ্য ক্যানসারে আক্রান্ত হয়ে কণ্ঠ হারানোর এক মর্মস্পর্শী গল্প আর সেই কণ্ঠ ফিরে পাওয়ার লড়াই নিয়ে তৈরি হয়েছে ছবিটি। ছবিতে জয়া আহসান ও পাওলি ছাড়াও অভিনয় করেছিলেন শিবপ্রসাদ মুখোপাধ্যায়, কনীনিকা বন্দ্যোপাধ্যায়, চিত্রা সেন, বিপ্লব দাশগুপ্ত প্রমুখ।

Bellow Post-Green View