চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

ওয়েব সেমিনারে সত্যজিৎ স্মরণ

২৩ এপ্রিল গুণী নির্মাতা সত্যজিৎ রায়ের প্রয়াণ দিবস উপলক্ষ্যে ওয়েব সেমিনার…

বাঙালি জাতি সত্ত্বার এক মহান প্রতিভূ সত্যজিৎ রায়। শুধু বাংলা ভাষাভাষি অঞ্চলের নয়, উপমহাদেশের এক অসাধারণ ব্যক্তিত্ব তিনি।সাহিত্যিক, নির্মাতা, শিল্পী, সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব এরকম বহু পরিচয়ে তাকে অভিহিত করা যায়। গুণী এই মানুষের প্রয়াণ দিন ২৩ এপ্রিল।

করোনাকালের আবদ্ধ এই সময়ে ঘরে বসেই সত্যজিৎকে স্মরণের উদ্যোগ নিয়েছে জেসিআই ঢাকা ওয়েস্ট এবং রে সোসাইটি অব বাংলাদেশ।

বিজ্ঞাপন

বুধবার (২২ এপ্রিল) রাত ৮টায় ‘রিমেমবারিং সত্যজিত- লাইফ অ্যান্ড সিনেমা’ শীর্ষক ওয়েব সেমিনারে আলোচক হিসেবে উপস্থিত থাকবেন মুভিয়ানা ফিল্ম সোসাইটির প্রতিষ্ঠাতা-প্রেসিডেন্ট বেলায়াত হোসেন মামুন, কলকাতার বিশিষ্ট সাংবাদিক ও সত্যজিৎ সংগ্রাহক-গবেষক বাণীব্রত মুখোপাধ্যায় এবং রে সোসাইটি অব বাংলাদেশের সহ প্রতিষ্ঠাতা ও জেসিআই বাংলাদেশ এর জিএলসি মুহাম্মাদ আলতামিশ নাবিল। লাইভ এই অনুষ্ঠানটি দেখা যাবে জেসিআই ঢাকা ওয়েস্ট এর ফেসবুকে।

বিজ্ঞাপন

ওয়েব সেমিনারটি নিয়ে আলতামিশ নাবিল জানান, নিঃসন্দেহে উপমহাদেশ এবং সমগ্র পৃথিবীর অন্যতম শ্রেষ্ঠ চলচ্চিত্রকার সত্যজিৎ রায়। বাংলার গর্ব গুণী এ চলচ্চিত্রকারের প্রয়াণ দিবসকে স্মরণ করে রাখতে আমাদের এই ছোট্ট উদ্যোগ।

তিনি জানান, এই অনুষ্ঠানের মাধ্যমে এদিন বাংলাদেশের সত্যজিৎ অনুরাগীদের জন্য ‘রে সোসাইটি অব বাংলাদেশ’ নামক একটি ফ্যান সোসাইটির আনুষ্ঠানিক শুভ সূচনা করা হবে।

১৯২১ সালের ২ মে কলকাতায় জন্মগ্রহণ করেন সত্যজিৎ রায়। তাঁর পৈতৃক বাড়ি বাংলাদেশের কিশোরগঞ্জে। চলচ্চিত্র পরিচালক, প্রযোজক, চিত্রনাট্যকার, সাহিত্যিক, সংগীত পরিচালক, গীতিকার হিসেবে তিনি পরিচিত।

‘পথের পাঁচালি’ সিনেমা নির্মাণের মধ্য দিয়ে চলচ্চিত্র শিল্পে সত্যজিৎ রায়ের যাত্রা শুরু। এরপর একে একে নির্মাণ করেন, পরশ পাথর , জলসা ঘর, অপুর সংসার, অভিযান, মহানগর, কাপুরুষ ও মহাপুরুষ , নায়ক, গুপি গাইন বাঘা বাইন , অরণ্যের দিন রাত্রি, সীমাবদ্ধ, অশনি সংকেত সোনার কেল্লা জন অরণ্য, শতরঞ্জ কি খিলাড়ী জয় বাবা ফেলুনাথ হীরক রাজার দেশে, ঘরে বাইরে, গণ শত্রু, শাখা প্রশাখা এবং সর্বশেষ বানানো সত্যজিতের সিনেমার নাম আগুন্তুক।