চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

ওয়েঙ্গারের জন্য ফুটবল বিশ্বের বিদায়ী শ্রদ্ধা

আর্সেনাল-ওয়েঙ্গার। দুটো শব্দ একে অন্যের পরিপূরক। ২২ বছর ধরে একই ক্লাবের দায়িত্ব পালন করছেন তিনি। শুক্রবার ঘোষণা দিয়েছেন মৌসুম শেষ হলে দায়িত্ব ছাড়বেন। কিংবদন্তি তুল্য কোচের এই ঘোষণায় আর্সেনাল সমর্থকরা হাহাকার করছেন। আর নামীদামী সব কোচ তার প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করেছেন।

স্যার অ্যালেক্স ফার্গুসন বলেছেন, ‘তার প্রতিদ্বন্দ্বী, সহকর্মী এবং বন্ধু হতে পেরে আমি গর্বিত।’

যে মরিনহো বহুবার আর্সেন ওয়েঙ্গারের সঙ্গে শীতলযুদ্ধে জড়িয়েছেন, সেই তিনিও চুপ করে থাকেননি। বলেছেন, ‘আপনারা জানেন না আমরা একে-অপরকে কতটুকু শ্রদ্ধা করতাম। বিদায়ের ঘোষণায় তিনি খুশি হলে আমিও খুশি। তিনি কষ্ট পেলে, আমিও কষ্ট পাব।’

১৯৯৬ সালের ১ অক্টোবর আর্সেনালের দায়িত্ব নেন ওয়েঙ্গার। ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে এখন ৬৮ বছর বয়সী ওয়েঙ্গারই সবচেয়ে দীর্ঘস্থায়ী কোচ।

তিনি তিনবার প্রিমিয়ার লিগ জিতেছেন। এফএ কাপ সাতবার।

বিজ্ঞাপন

বিদায়ের ঘোষণা দেয়ার সময় বলেন, ‘এতগুলো স্মরণীয় বছর ক্লাবের সেবা করতে পেরে আমি কৃতজ্ঞ। শতভাগ নিবেদন আর সততা নিয়ে দায়িত্ব পালন করে গেছি।’

সমর্থকদের উদ্দেশে তিনি বলেন, ‘আপনারা ক্লাবের যে মূল্য সেটির যত্ন নিবেন।’

ওয়েঙ্গার দায়িত্ব নেওয়ার পর গত বছরই প্রথমবারের মতো লিগের সেরা চারে থাকতে পারেনি আর্সেনাল। এবার পাঁচ ম্যাচ বাকি থাকতে চতুর্থ স্থানে থাকা টটেনহ্যামের চেয়ে ১৪ পয়েন্ট পিছিয়ে ষষ্ঠ স্থানে গানাররা।

ওয়েঙ্গারের এমন বিদায় মানতে পারছেন না লিভারপুল কোচ ক্লপ। তিনি কিছুটা বিস্মিত, ‘আমি অবাক হয়েছি। তবু তার সিদ্ধান্তকে সম্মান করি। ফুটবলে তার প্রভাব আছে। অসামান্য অবদান রেখে বিদায় বলছেন।

ওয়েঙ্গারের বিদায়ের খবর শুনে প্রিমিয়ার লিগের চেয়ারম্যান রিচার্ড বলেন, ‘তার সব টিম দেখার মতো। ২০০৩-০৪ মৌসুমের দলটি ছিল অপরাজেয়। ইংলিশ ফুটবল ইতিহাসের অন্যতম সেরা।’

শেয়ার করুন: