চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

ওয়াজিদের পরিবার ধর্মান্তরের জন্য চাপ দিতো: কমলরুখ খান

বলিউডের জনপ্রিয় সুরকার ওয়াজিদ খানের মৃত্যুর পাঁচ মাস পেরিয়েছে। হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে তার এই আকস্মিক মৃত্যুর ধাক্কা এখনও পুরোপুরি সামলে উঠতে পারেনি পরিবার। এর মাঝে তার স্ত্রী কমলরুখ খান জানালেন তাদের দাম্পত্য জীবনের নানা ঝামেলার কথা।

সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করা এক পোস্টে কমলরুখ বলেন, ‘আমি পারসি আর ও ছিল মুসলমান। আমাদের কলেজ থেকে বন্ধুত্ব ছিল। ভালোবেসে বিয়ে করেছিলাম স্পেশাল ম্যারেজ অ্যাক্টে। এখন এসে জানাচ্ছি, একজন নারী হিসেবে আমাকে ধর্মের নামে কত ভোগান্তি এবং বৈষম্যের শিকার হতে হয়েছে।’

বিজ্ঞাপন

তিনি আরও বলেন, ‘পারসি পরিবারে বেড়ে উঠেছিলাম। বিয়ের পরে আমার স্বাধীনচেতা মন, শিক্ষা এবং গণতান্ত্রিক মনোভাব স্বামীর পরিবারে আপত্তির কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছিল। একজন শিক্ষিত, স্বাবলম্বী নারীর কোনো মতামত গ্রহণ করা হতো না। ধর্মান্তরের চাপের বিরুদ্ধে লড়াই করা ছিল ধর্মত্যাগের সামিল।’

কমলরুখ জানিয়েছেন, ওয়াজিদ খানের পরিবার তাকে ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করার জন্য চাপ দিতো এবং নানা রকম ভয়ভীতি দেখাতো। ডিভোর্সের ভয়ও দেখানো হয়েছিল। এতে তিনি ভেঙে পড়েছিলেন, বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছিলেন। নিজেকে প্রতারিত মনে হতো তার। ওয়াজিদের মৃত্যুও এই মানসিক কষ্টগুলোকে হালকা করতে পারেনি।

তিনি মনে করেন, ধর্ম হলো চর্চার বিষয়, পরিবারকে ভাগ করার অস্ত্র নয়। সব ধর্মের পথই এক। তাই বিষয়টিকে বিষাক্ত করে ফেলা ঠিক নয়। পিঙ্ক ভিলা