চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

‘ওয়াই প্লাস’ নিরাপত্তা পাওয়া প্রথম বলিউড তারকা কঙ্গনা

৭ সেপ্টেম্বর সোমবার কঙ্গনাকে ‘ওয়াই প্লাস’ নিরাপত্তা দিল কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রণালয়। এজন্য কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন কঙ্গনা। এই প্রথম কোনো বলিউড তারকা ‘ওয়াই প্লাস’ নিরাপত্তা পেলেন।

জানা গেছে, কঙ্গনার সঙ্গে তিন শিফটে তিনজন ব্যক্তিগত নিরাপত্তা অফিসার থাকবেন। এছাড়াও থাকবেন ১১ জন সিআরপিএফ কমান্ডো।

বিজ্ঞাপন

সিআরপিএফ এর তরফ থেকে জানানো হয়েছে, তারা এখনও কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রণালয় এর পক্ষ থেকে কোনো চিঠি পাননি। চূড়ান্ত অনুমতি পেলেই তারা কাজ শুরু করে দেবেন।

বিজ্ঞাপন

সিআরপিএফ জানিয়েছে এই প্রথম কোনও বলিউড অভিনেতাকে তারা সুরক্ষা প্রদান করবেন। একমাত্র বলিউড ব্যক্তিত্ব যাকে তারা সুরক্ষা দিচ্ছেন তিনি হলেন এমপি রূপা গাঙ্গুলি।

সিআইএসএফের মুখপাত্র ডিআইজি অনিল পান্ডে বলেন, ‘আমরা ৬৫ জন বিশিষ্ট ব্যক্তিকে সুরক্ষা দিচ্ছি, কোনো বলিউড তারকাকে নয়।’ ইটিবিপিও বলিউড তারকাদের সুরক্ষায় নিয়োজিত নয়। তবে বলিউডের অনেক তারকার সুরক্ষার কাজে নিয়োজিত আছেন পুলিশ সদস্যরা।

ভিআইপি সুরক্ষা এনএসজি কমান্ডোদের প্রত্যাহার করার পরে, আধাসামরিক বাহিনী এখন এক্স, ওয়াই এবং জেড বিভাগের জন্য ভিআইপি সুরক্ষা সরবরাহ করে এবং সিআরপিএফ, আইটিবিপি, এবং সিআইএসএফকে সাধারণত রাজ্য সরকার পুলিশের পাশাপাশি এই দায়িত্ব দেওয়া হয়।

ভারতে মানুষের নিরাপত্তা দেয়ার জন্য পাঁচটি ক্যাটাগরি আছে- এক্স, ওয়াই, ওয়াই প্লাস, জেড এবং জেড প্লাস। এগুলো প্রয়োগ করা হয় ইন্টেলিজেন্স রিপোর্ট, ব্যক্তিগত অনুরোধ, হুমকি এবং জনসমাবেশে আইন শৃঙ্খলা বজায় রাখার জন্য।

পাক অধিকৃত কাশ্মীরের মতো হয়ে গিয়েছে মুম্বাই, এই মন্তব্য করে বিতর্কে জড়িয়েছেন কঙ্গনা। ক্ষমা না চাইলে তাকে মুম্বাইয়ে প্রবেশ করতে দেওয়া হবে না, এই হুমকি দিয়েছেন শিবসেনা সাংসদ সঞ্জয় রাউত। কঙ্গনাও জানিয়ে দিয়েছেন ৯ সেপ্টেম্বর তিনি মুম্বাই প্রবেশ করবেন। কঙ্গনার ঝুঁকির কথা বিবেচনা করে তার রাজ্য হিমাচল প্রদেশের সুপারিশে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রণালয় তাকে ‘ওয়াই প্লাস’ নিরাপত্তা দিয়েছে।