চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

ওষুধ প্রশাসনের অনুমোদন পেল মিনিস্টার সার্জিক্যাল মাস্ক

করোনা মহামারির এই দুর্যোগময় সময়ে অতি প্রয়োজনীয় বস্তু সার্জিক্যাল মাস্ক। এই সময়ে যখন উচ্চ মুল্যে বাজার সয়লাব নিম্নমানের সিঙ্গেল লেয়ারের মাস্কে। এ সময় জাতীয় ক্রান্তিলগ্নে মিনিস্টার নিয়ে এল হাই কোয়ালিটির মেল্ট ব্লন সমৃদ্ধ ট্রিপল লেয়ার সার্জিক্যাল মাস্ক যা প্রায় ৯৯% ভাইরাস প্রতিরোধক। সম্প্রতি বাংলাদেশ ঔষধ প্রশাসন অধিদপ্তর কর্তৃক মিনিস্টার হাই-টেক পার্ক লিমিটেডকে “সার্জিক্যাল মাস্ক” উৎপাদন ও বাজারজাতকরণের অনুমতিপত্র প্রদান করেছে।

মিনিস্টার সার্জিক্যাল মাস্ক মেল্ট ব্লন সমৃদ্ধ ৩ স্তরের প্রটেক্টিভ যা প্রায় ৯৯% ব্যাকটেরিয়ারোধক ক্ষমতাসম্পন্ন। এটি করোনা ভাইরাসসহ অন্যান্য রোগ-জীবাণু থেকে সুরক্ষা নিশ্চিত করবে।

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

তাছাড়া চলমান করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে মাস্ক ব্যবহার করা খুবই জরুরী। এই সংক্রমণ ঠেকাতে বিশ্বের বহু দেশের পাশপাশি বাংলাদেশেও মাস্ক ব্যবহৃত হচ্ছে। বিশেষজ্ঞরা মনে করছেন, মাস্ক ব্যবহারের ফলে বায়ুদূষণ, হাঁচি বা কাশি থেকে এবং হাত থেকে মুখে সংক্রমণ কমিয়ে আনা সম্ভব। তবে বর্তমানে ভালমানের মাস্কের চাহিদার তুলনায় সরবরাহ একেবারেই কম। এজন্যই মিনিস্টার  এই সার্জিক্যাল মাস্ক উৎপাদন করেছে যা বাজারে প্রাপ্ত অন্যান্য মাস্কের তুলনায় অনেক মানসম্মত এবং একদম সাশ্রয়ী মূল্যে মিনিস্টারের যে কোন বিক্রয়কেন্দ্রে পাওয়া যাচ্ছে।

বিজ্ঞাপন

বাংলাদেশ ওষুধ প্রশাসন অধিদপ্তরের মহাপরিচালক মেজর জেনারেল মোঃ মাহবুবুর রহমান এ ব্যাপারে সন্তোষ প্রকাশ করেছেন এবং তিনি বলেন, “মিনিস্টার সার্জিক্যাল মাস্ক হাই কোয়ালিটি এবং মেল্ট ব্লন সমৃদ্ধ ট্রিপল লেয়ার “। তিনি তাদেরকে সুলভ মুল্যে এই সার্জিক্যাল মাস্ক বাজারে দেয়ার জন্য আহবান জানাচ্ছেন।

তার এই আহবানে সাড়া দিয়ে মিনিস্টার হাই-টেক পার্ক লি. এর চেয়ারম্যান ও এফবিসিসিআই এর ডিরেক্টর জনাব এম এ রাজ্জাক খান (রাজ) বাজারে সুলভ মুল্যে মাত্র ১০ টাকায় এই মাস্ক সরবরাহ করার কথা ঘোষণা করে বলেন, কোন ব্যবসায়িক উদ্দেশ্য নয় বরং মানব সেবার জন্য এবং মানুষের জন্য মিনিস্টার পণ্য এই স্লোগানকে সামনে রেখে আমরা মানুষের জন্যে সুলভ মুল্যে এই মাস্ক পৌছে দেয়ার ব্রত নিয়ে কাজ করে যাচ্ছি। আমাদের নিজস্ব ফ্যাক্টরিতে তৈরি হচ্ছে এই উন্নত মানের মাস্ক এবং তা আমরা বাজারজাতকরন শুরু করেছি।