চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

ওটিটি প্ল্যাটফর্ম নিয়ন্ত্রণ ও রাজস্ব আদায়ে নীতিমালা প্রণয়নের নির্দেশ

নেটফ্লিক্স, হইচই কিংবা ইন্টারনেট ভিত্তিক এধরণের দেশি-বিদেশি ওটিটি প্ল্যাটফর্মে প্রদর্শিত কন্টেন্ট তদারকি, নিয়ন্ত্রণ ও রাজস্ব আদায়ে নীতিমালা প্রণয়নের নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট।

তথ্য সচিব ও বিটিআরসির চেয়ারম্যানকে আগামী তিন মাসের মধ্যে এই নীতিমালার খসড়া প্রণয়ন করে তা আদালতে দাখিল করতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। সোমবার বিচারপতি জেবিএম হাসান ও বিচারপতি মো. খায়রুল আলমের হাইকোর্ট বেঞ্চ এই আদেশ দেয়। আদালতে রিট আবেদনের পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী তানভীর আহমেদ। বিটিআরসির পক্ষে ছিলেন আইনজীবী খন্দকার রেজা-ই-রাকিব। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল তুষার কান্তি রায়।

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

এরআগে ইন্টারনেট ভিত্তিক ওটিটি প্ল্যাটফর্মে অনৈতিক ও আপত্তিকর ভিডিও কনটেন্ট পরিবেশন রোধের নিষ্ক্রিয়তা চ্যালেঞ্জ করে গত বছর ১২ জুলাই হাইকোর্টে রিট করেন সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী তানভীর আহমেদ। ওই রিটে ওটিটি প্ল্যাটফর্ম নিয়ন্ত্রণ-তদারকিতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহনের নির্দেশনা চাওয়া হয়েছিল।

এরপর ওই রিটের প্রাথমিক শুনানি নিয়ে গত বছর ১৫ জুলাই আদালত ওটিটি-নির্ভর বিভিন্ন ওয়েবপেজ প্ল্যাটফর্ম থেকে অনৈতিক ও আপত্তিকর ভিডিও কনটেন্ট সরাতে ৭ দিনের মধ্যে ব্যবস্থা নিতে নির্দেশ দিয়েছিলেন। সেই সাথে বিভিন্ন ওটিটি প্ল্যাটফর্ম থেকে রাজস্ব আদায়ের বিষয়ে এক মাসের মধ্যে প্রতিবেদন দিতে বলা হয়েছিল। এছাড়া ওটিটি-নির্ভর বিভিন্ন প্ল্যাটফর্ম তদারকির জন্য নীতিমালা প্রণয়নের কেন নির্দেশ দেওয়া হবে না, তা জানতে চেয়ে রুল জারি করা হয় সেসময়। ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের সচিব, তথ্যসচিব, সংস্কৃতিসচিব, বিটিআরসির চেয়ারম্যানসহ ৮ বিবাদীকে এই রুলের জবাব দিতে বলা হয়েছিল। এরপর বিটিআরসি ও পুলিশের পক্ষ থেকে হাইকোর্টে প্রতিবেদন দাখিল করা হলে সেই প্রতিবেদন দেখে আজ আদেশ দিলেন হাইকোর্ট।