চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

ওআইসি মহাসচিবের সাথে রাষ্ট্রদূত জাবেদ পাটোয়ারীর দ্বিপাক্ষিক বৈঠক

ওআইসি মহাসচিব ড. ইউসুফ বিন আহমেদ আল ওথাইমিনের সাথে দ্বিপাক্ষিক বৈঠক করেছেন সৌদি আরবে নবনিযুক্ত বাংলাদেশের  রাষ্ট্রদূত ড. মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারী বিপিএম (বার)।

সোমবার অর্গানাইজেশন অফ ইসলামিক সম্মেলন সংস্থা ওআইসির সদর দপ্তর জেদ্দায় অনুষ্ঠিত দ্বিপাক্ষিক এই বৈঠকে ওআইসি মহাসচিব ড. ইউসুফ বিন আহমেদ আল ওথাইমিন এর কাছে তাঁর ক্রেডেনশিয়াল পেশ করেন তিনি। উল্লেখ্য  রাষ্ট্রদূত ড. মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারী ওআইসিতে বাংলাদেশের স্থায়ী প্রতিনিধি হিসেবেও দায়িত্ব পালন করবেন।

বিজ্ঞাপন

এ সময় বাংলাদেশের সাথে সংস্থাটির আরও সহযোগিতা বৃদ্ধি, ওআইসির বিভিন্ন কার্যক্রম, বিশ্বের বিভিন্ন দেশে নিপীড়িত মুসলমানদের বিষয়ে ওআইসির ভূমিকা বিশেষ করে মায়ানমারে রোহিঙ্গাদের উপর নির্যাতনসহ দ্বিপাক্ষিক বিভিন্ন বিষয় নিয়ে আলোচনায হয়।

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

রাষ্ট্রদূত রোহিঙ্গাদের বিরুদ্ধে সংঘটিত গণহত্যার জন্য আন্তর্জাতিক বিচার আদালতে চলমান মামলার বিষয় উল্লেখ করলে সংস্থাটির মহাসচিব ওআইসিকে শক্তিশালী করণে বাংলাদেশের স্থপতি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের কথা স্মরণ করেন। তিনি ভাতৃপ্রতিম বাংলাদেশ বিপুল সংখ্যক রোহিঙ্গা শরণার্থীকে আশ্রয় দেয়ার জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বের ভূয়সী প্রশংসা করেন। বাংলাদেশের পাশে থেকে মায়ানমারের বিরুদ্ধে আন্তর্জাতিক আদালতে দায়ের করা মামলার তহবিল বাড়াতে সম্পূর্ণ সহায়তা প্রদান ও বাংলাদেশকে এ বিষয়ে রাজনৈতিক ও নৈতিক সহায়তা প্রদানে সব ধরনের পদক্ষেপ নেয়া হবে বলে রাষ্ট্রদূতকে আশ্বাস প্রদান করেন। রাষ্ট্রদূত রোহিঙ্গাদের দ্রুত মিয়ানমারে ফিরিয়ে নেয়ার বিষয়ে ওআইসির পদক্ষেপ গ্রহণের জন্য মহাসচিবকে অনুরোধ করেন।

বাংলাদেশকে ওআইসির সক্রিয় সদস্য হিসাবে উল্লেখ করে মহাসচিব বাংলাদেশে বিভিন্ন অনুষ্ঠান আয়োজনের অনুরোধ করেন যা সংস্থাটির সাথে বাংলাদেশের সম্পৃক্ততা বাড়াতে সাহায্য করবে। এছাড়া বাংলাদেশের বিশ্ববিদ্যালয়সমূহে ওআইসির সদস্যভুক্ত নাগরিকদের বৃত্তির তথ্য প্রদানের অনুরোধ করা হয় যা ওআইসির ডাটাবেজে প্রকাশ করা হবে।

বাংলাদেশকে নারীর ক্ষমতায়নের রোল মডেল হিসাবে প্রশংসা করে মহাসচিব বলেন, এ সফলতা অর্জনে বাংলাদেশের জন্য ওআইসি গর্বিত। বৈঠকে মিয়ানমারের রাখাইনে রোহিঙ্গাদের জন্মভুমিতে মর্যাদাপূর্ণ প্রত্যাবর্তন ও আইসিজেতে রোহিঙ্গাদের গণহত্যার বিরুদ্ধে ন্যায়বিচার নিশ্চিত করার জন্য ওআইসি সর্বদা বাংলাদেশের পাশে থাকার প্রতিশ্রুতি প্রদান করেন মহাসচিব।

বৈঠকে জেদ্দাস্থ বাংলাদেশ কনস্যুলেটের কনসাল জেনারেল ফয়সাল আহমেদসহ দূতাবাস এবং ওআইসির ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।