চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

এমসি কলেজে গণধর্ষণ: ছাত্রলীগের ৯ নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে মামলা

সাদিকুর রহমান সাকী: সিলেটের মুরারিচাঁদ (এমসি) কলেজের একটি ছাত্রাবাসে স্বামীকে বেঁধে রেখে স্ত্রীকে গণধর্ষণের ঘটনায় ছাত্রলীগের ৯ জন নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। তবে পুলিশ এখনো কাউকে গ্রেফতার করতে পারেনি।

অভিযুক্তরা হলেন; এমসি কলেজ ছাত্রলীগের নেতা ইংরেজি বিভাগের মাস্টার্সে শিক্ষার্থী শাহ মাহবুবুর রহমান রণি, একই শ্রেণীতে অধ্যয়নরত ছাত্রলীগ নেতা মাহফুজুর রহমান মাছুম, কলেজ ছাত্রলীগ নেতা এম সাইফুর রহমান, ছাত্রলীগ নেতা অর্জুন লস্কর এবং বহিরাগত ছাত্রলীগ নেতা রবিউল ও তারেক।

বিজ্ঞাপন

মামলায় ৬ জনকে সরাসরি জড়িত বলে অভিযুক্ত করা হয়েছে। অন্য ৩ জনের বিরুদ্ধে সহযোগিতার অভিযোগ আনা হয়।

শাহপরান থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আব্দুল কাইয়ূম জানান, ওই ঘটনায় শাহপরাণ থানায় ৬ জনকে সরাসরি অভিযুক্ত করে ৯ জনের বিরুদ্ধে একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে।

বিজ্ঞাপন

অভিযুক্তদের গ্রেপ্তারে পুলিশে রাতেই অভিযান শুরু করলেও শনিবার সকাল ১০টা পর্যন্ত কাউকে গ্রেফতার করতে পারেনি।

অভিযোগে বলা হয়েছে, শুক্রবার সন্ধ্যায় এমসি কলেজ ক্যাম্পাসে বেড়াতে যান ধর্ষণের শিকার ওই তরুণী ও তার স্বামী। রাত ৯ টার দিকে ছাত্রলীগের কয়েকজন নেতাকর্মী স্বামীকে মারধর করে স্ত্রীকে ছিনিয়ে ছাত্রাবাসে নিয়ে যায়।

পরে স্বামী তাদের পিছু পিছু গেলে তাকে বেঁধে রেখে স্ত্রীকে ৫ থেকে ৬ জন ছাত্রলীগ নেতাকর্মী গণধর্ষণ করে বলে অভিযোগ।

রাত সাড়ে ১০ টার দিকে পুলিশ কলেজের ছাত্রাবাস এলাকা থেকে ধর্ষণের শিকার হওয়া তরুণী ও তার স্বামীকে উদ্ধার করে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করে।

মহানগর পুলিশের এডিসি মিডিয়া জ্যোর্তিময় সরকার জানিয়েছেন, খবর পেয়ে শাহপরান থানা পুলিশের একটি দল ঘটনাস্থলে গিয়ে স্বামী-স্ত্রীকে উদ্ধার করে।