চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

এমন ম্যাচেও হারের শঙ্কায় বাংলাদেশ

মিরপুরের কন্ডিশন কাজে লাগিয়ে অতীতে সাকিব-তাইজুল-মিরাজরা অবিস্মরণীয় কয়েকটি জয় উপহার দিয়েছেন। স্পিন ত্রয়ী এবার নির্বিষ। পাকিস্তানের আনকোরা দুই স্পিনার সেখানে বাংলাদেশকে রেখেছেন প্রচণ্ড চাপে। টাইগারদের চেনা ভেন্যুতে একপ্রান্তে রাজ করছেন সাজিদ খান, অন্যপাশ থেকে চাপ প্রয়োগ করছেন ‍নুমান আলি।

যে টেস্টে গত দু’দিন রাজত্ব করেছে বৃষ্টি। ম্যাড়মেড়ে সেই ম্যাচ জমে উঠেছে চতুর্থ দিন মাঠে খেলা গড়াতেই। ৪ উইকেটে তিনশ ছুঁয়ে ইনিংস ঘোষণার পর বাংলাদেশকে ফলো-অনের শঙ্কায় রেখেছে পাকিস্তান। বৃষ্টি আর আলোর স্বল্পতায় টেস্ট ম্যাচটির দৈর্ঘ্য ছোট হয়ে এলেও স্বাগতিকদের হারের শঙ্কা রয়ে গেছে।

৭৬ রানে বাংলাদেশ হারিয়েছে ৭ উইকেট। ফলো-অন এড়াতে করতে হবে আরও ২৫ রান। সাকিব আল হাসান ২৩ রানে অপরাজিত থেকে দিন শেষ করায় কিছুটা আশা আছে প্রথম ইনিংস একশ পেরোনোর।

অভিজ্ঞতার দিক দিয়ে সাকিব-তাইজুল-মিরাজরা এগিয়ে, সেখানে আনকোরা দুই স্পিনার নিয়ে টেস্টের নিয়ন্ত্রণ নিয়েছে পাকিস্তান। অফস্পিনার সাজিদের শিকার ৬ উইকেট। অপর উইকেটটি বাঁহাতি স্পিনার নুমানের।

পেসারদের মধ্যে শাহিন শাহ আফ্রিদি করেছেন শুধু প্রথম ওভারটি। আকাশ মেঘাচ্ছন্ন থাকায় ফ্লাডলাইটে হয়েছে পুরো দিনের খেলা। আলো কম থাকায় পেসারদের বল না করার অনুরোধ জানান আম্পায়াররা। একটি ওভার ছাড়া পেসার আক্রমণে আনেনি সফরকারী অধিনায়ক বাবর আজম।

বিজ্ঞাপন

দিনের খেলা শেষে অনলাইন সংবাদ সম্মেলনে আসেন টপঅর্ডার ব্যাটারদের ব্যর্থতার মাঝে আশা জাগানিয়া ৩০ রানের ইনিংস খেলা নাজমুল হোসেন শান্ত। কথা বলেন উইকেট-রান নিয়ে।

‘উইকেট কঠিন ছিল। এখানে ৪ উইকেটে ৩০০ রান করার মতো না। আমাদের বোলিং ভালো হয়নি। ব্যাটিংয়ে আমাদের আরও ভালো খেলার সামর্থ্য আছে। আজ হয়নি। পরের ইনিংসে ভালো করতে হবে ম্যাচ বাঁচাতে হলে।’

পাকিস্তানের বিপক্ষে সিরিজে বাংলাদেশ দলের টিম ডিরেক্টর ছিলেন খালেদ মাহমুদ সুজন। মিরপুরে শেষ টেস্টে অবশ্য তিনি দলের সঙ্গে ড্রেসিংরুমে ছিলেন না। তবে মিরপুরে এসেই খেলায় চোখ রেখেছেন। পাকিস্তানের স্পিনে নখদন্তহীন ব্যাটিং হতাশ করেছে তাকে।

‘কেনো এমন হল জানি না। অধৈর্য ব্যাপারটা ছিল, টেস্ট ব্যাটিং বলতে যা বোঝায় সেরকম ব্যাটিং করিনি আমরা। কেনো এই ব্যাপারটা হচ্ছে সেটা চিন্তার বিষয়। উইকেটে স্পিন হচ্ছিল এবং ওরা ভালো স্পিনও করেছে, কিন্তু কোয়ালিটি স্পিন খেলার সামর্থ্য আমাদের আছে।’

‘হয়নি কেনো বা এত তাড়াহুড়ো কেনো সেটা জানি না, আমরা তো জানি যে আজ সারাদিন ব্যাটিং করার ছিল, কালকের দিনটায় টেস্ট শেষ হবে। চারটা-সাড়ে চারটা সেশন হয়তবা। পাকিস্তান যেভাবে ব্যাটিং করেছে, বিশেষ করে আজহার আলি যেভাবে লম্বা সময় ব্যাট করল, সেখান থেকে আমাদের শিক্ষা নেয়া উচিত ছিল।’

বিজ্ঞাপন