চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

এবারের আইপিএলে কমবে চার-ছক্কার প্রদর্শনী!

টি-টুয়েন্টি ক্রিকেট থেকে দর্শকদের প্রাপ্তি কী? উত্তর খুব সহজ, চার-ছক্কার বন্যা। টাকা দিয়ে টিকিট কিনে কিংবা ঘরে বসে টিভিতে তিন ঘণ্টার ক্রিকেট একমনে বসে দেখার দৃশ্য একটাই, ব্যাটসম্যানদের কাছে বোলারদের বেধড়ক মার খাওয়া। তাই দর্শক না থাকলেও আইপিএল নিয়ে আগ্রহের কমতি নেই। যাই হোক অন্তত ধুন্ধুমার ক্রিকেটীয় অ্যাকশন তো দেখা যাবে।

তবে দর্শকরা এবার হতাশ হতে পারেন। আরব আমিরাতের আমিরশাহীর যে তিন স্টেডিয়ামে এবার আইপিএল অনুষ্ঠিত হবে এগুলোর আয়তন ভারতের স্টেডিয়ামের তুলনায় বড় হওয়ায় বাউন্ডারি-ওভার বাউন্ডারি কমে আসার শঙ্কা।

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

করোনা মহামারির কারণে ভারত ছেড়ে আমিরাতে বসছে আইপিএলের ১৩তম আসর। ম্যাচগুলো হবে আরব আমিরাতের শেখ আবু জায়েদ স্টেডিয়াম, দুবাই আন্তর্জাতিক স্টেডিয়াম ও শারজাহ আন্তর্জাতিক স্টেডিয়ামে।

বিজ্ঞাপন

তিনটি স্টেডিয়ামের আয়তনই তুলনামূলকভাবে বেশ বড়। একইসঙ্গে সইতে হবে টানা ম্যাচের ধাক্কাও। ভারতে প্রতিটি দলের নিজস্ব স্টেডিয়াম থাকায় এবং ম্যাচগুলো হোম-অ্যাওয়ে ভিত্তিতে হওয়ায় মাঠগুলো যথেষ্ট বিশ্রাম ও পরিচর্যা হওয়ার সময়-সুযোগ পেতো। এবার আর তা হচ্ছে না। টানা খেলার কারণে আস্তে আস্তে উইকেট স্লো হতে থাকবে, কমবে রানের গতিও। বল ব্যাটে না আসায় ছক্কার বদলে হাতে উঠতে পারে ক্যাচও।

সে যাই হোক, অনিশ্চয়তার মেঘ সরে গিয়ে এই অক্টোবরেও যে আইপিএল হচ্ছে তাতেই খুশি ফ্র্যাঞ্চাইজিগুলো। শনিবার টুর্নামেন্টের সেরা দুই দল মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স বনাম চেন্নাই সুপার কিংসের ম্যাচ দিয়ে দর্শকহীন মাঠে দারুণ উপভোগ্য কিছুর আশা দিয়েই শুরু হচ্ছে অভিজাত টি-টুয়েন্টির লড়াই।