চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

এখন সরকারের ঋণেই ভরসা টটেনহ্যামের

করোনাভাইরাসে আর্থিক মেরুদণ্ড নড়বড়ে হয়ে গেছে। ক্লাবকে প্রতিযোগিতায় রাখতে দরকার প্রণোদনা। বাধ্য হয়ে সেদিকেই নজর দিতে হয়েছে ইংলিশ ক্লাব টটেনহ্যাম হটস্পারকে। ব্রিটিশ সরকারের থেকে স্পারদের ধার-দেনার পরিমাণ এখন ১৭.৫ কোটি পাউন্ড!

সরকারের কর্পোরেট ফিন্যান্সিং ফ্যাসিলিটির প্রণোদনার সুযোগ নিয়ে বিশাল এ ঋণ সুবিধা পাচ্ছে টটেনহ্যাম। ক্লাব ও ব্যাংক অব ইংল্যান্ড কর্তৃপক্ষ বিষয়টি নিশ্চিত করেছে।

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

ঋণ পরিশোধে ২০২১ সালের এপ্রিল পর্যন্ত সময় পাচ্ছে টটেনহ্যাম। এ সময়ে ঋণের উপর তাদের পরিশোধ করতে হবে মাত্র ০.৫ শতাংশ সুদ।

বিজ্ঞাপন

করোনার কারণে আগামী অর্থবছরে মোট ২০ কোটি পাউন্ড ক্ষতি হতে পারে এমন আশঙ্কা থেকেই আগেভাগে ঋণ নিয়ে রাখা টটেনহ্যামের। হাতেগোনা মাত্র কয়েকটি ক্লাব পাবে সরকারের ঋণ সুবিধা।

এই অর্থ দিয়ে অবশ্য খেলোয়াড় কেনা কিংবা বেতন পরিশোধ করা হবে না। বাড়তি মূলধনের ফলে আর্থিক নমনীয়তা বজায় রাখার জন্যই মূলত ঋণ গ্রহণ। একইসঙ্গে নতুন স্টেডিয়াম তৈরিতে যে ১ বিলিয়ন পাউন্ড খরচ হয়েছে সেখানকার কিছু ঋণও প্রাপ্ত অর্থে পরিশোধ করতে পারবে ক্লাবটি।