চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

এখনও থমথমে রাঙ্গামাটি

রাঙ্গামাটির বাঘাইছড়িতে সন্ত্রাসীদের ব্রাশ ফায়ারে হতাহতের ঘটনায় এখনো থমথমে পরিস্থিতি বিরাজ করছে। এ ঘটনায় বাঘাইছড়িতে নিহত ৫ জনের দাফন ও ২ জনের শেষকৃত্য সম্পন্ন হয়েছে।

বিজ্ঞাপন

বাঘাইছড়িতে নির্বাচনী কর্মকর্তাদের গাড়ীতে দুর্বৃত্তদের ব্রাশফায়ারে হতাহতের ঘটনায় গঠিত তদন্ত কমিটি বুধবার সন্ধ্যায় রাঙ্গামাটিতে বৈঠকে বসবেন।

অন্যদিকে বিলাইছড়িতে আওয়ামী লীগ সভাপতি সুরেশ কান্তি তঞ্চঙ্গ্যা হত্যার প্রতিবাদে স্থানীয় আওয়ামী লীগের ডাকে ৪৮ ঘণ্টার নৌ-পথ ও সড়ক অবরোধ চলছে। রাঙ্গামাটিতে বিক্ষোভ করেছে জেলা আওয়ামী লীগ।

পাহাড়ে এমন রক্তাক্ত ঘটনা নতুন নয়। গত ১৫ মাসে নিহত হয়েছেন ৫৮ জন। সর্বশেষ রাঙ্গামাটির বাঘাইছড়ি ও বিলাইছড়িতে রক্তপাতের ঘটনা ঘটল। উপজেলা নির্বাচনের দ্বিতীয় ধাপে ভোট গণনা শেষে সোমবার সন্ধ্যায় বাঘাইহাট থেকে ফেরার পথে দীঘিনালা-মারিশ্যা সড়কের ৯ কিলো নামক স্থানে অস্ত্রধারী দুর্বৃত্তরা ব্রাশ ফায়ার করে। এতে ৭ জন নিহত ও ২৫ জন গুলিবিদ্ধ হন।

নিহতরা হলেন সহকারী প্রিজাইডিং অফিসার মো আমির হোসেন, পোলিং অফিসার আবু তৈয়ব, আনসার-ভিডিপি সদস্য আল আমিন, বিলকিস আক্তার, জাহানারা বেগম, মিহির কান্তি দত্ত ও গাড়ীর হেলপার মন্টু চাকমা। এ ঘটনার পরদিন বিলাইছড়িতে দুর্বৃত্তের গুলিতে প্রাণ হারান বিলাইছড়ি উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি সুরেশ কান্তি তঞ্চঙ্গ্যা।

নিহতদের পরিবারে চলছে স্বজনদের শোকের মাতম।

বিজ্ঞাপন

এ ঘটনায় অতিরিক্ত সচিব ও স্থানীয় সরকার বিভাগের পরিচালক দীপক চক্রবর্তীকে প্রধান করে ৭ সদস্যের কমিটি গঠন করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার সকালে তদন্ত কমিটির ঘটনাস্থল পরিদর্শনে যাওয়ার কথা রয়েছে।

এ ঘটনার প্রতিবাদে বাঘাইছড়ি সদরে সকল ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে কালো পতাকা উত্তোলন ও বুকে কালো ব্যাজ ধারণ করে শোক পালন করছে বাঙালি সংগঠনগুলো।

অবৈধ অস্ত্র উদ্ধারে চিরুনী অভিযান চালানোর দাবি জানিয়েছেন স্থানীয় জনপ্রতিনিধিরা।এদিকে এই ঘটনার পরদিন রাঙ্গামাটির বিলাইছড়ি উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি সুরেশ কান্তি তঞ্চঙ্গ্যাকে গুলি করে হত্যা করে দুর্বৃত্তরা। ঘটনার প্রতিবাদে বিলাইছড়িতে ৪৮ ঘণ্টা নৌ ও সড়ক পথ অবরোধ চলছে।

ঘটনার প্রতিবাদে রাঙ্গামাটিতে বিক্ষোভ করেছে জেলা আওয়ামী লীগ। অবৈধ অস্ত্রধারীদের বিরুদ্ধে সাঁড়াশি অভিযান চালানোর দাবি জানিয়েছেন নেতৃবৃন্দ।

রাঙ্গামাটির বিভিন্ন স্থানে নিরাপত্তা টহল জোরদার করা হলেও দুটি ঘটনায় এখনো কোন মামলা হয়নি।

Bellow Post-Green View