চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

এক সপ্তাহ পর চীনে খনিতে আটকে পড়া ১২ শ্রমিকের সন্ধান

এক সপ্তাহ আগে চীনের একটি স্বর্ণের খনিতে বিস্ফোরণের ঘটনায় আটকা পড়া ১২ জন শ্রমিক এখনও বেঁচে থাকতে পারে বলে আশা করছে উদ্ধারকারীরা।

বিবিসির এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, চীনের পূর্বাঞ্চলীয় সানডং প্রদেশে শিচেং টাউনশিপ এলাকার স্বর্ণের খনিতে ১০ জানুয়ারি থেকে আটকা পড়ে আছেন ওই শ্রমিকরা। তাদের বের করার জন্য যে সুড়ঙ্গ তৈরি করা হচ্ছে, সেখান থেকেই ১২ জন জীবিত থাকার চিরকুট পাওয়া গেছে।

ওই খনিতে মোট ২২ জন শ্রমিক আটকে পড়ে। ১২ জন জীবিত থাকার বিষয়টি জানা গেলেও বাকিদের সঙ্গে ঠিক কী ঘটেছে, তা এখনো অজানা।

সেই চিরকুটে লেখা আছে, আটকেপড়া শ্রমিকরা ক্লান্ত। তাদের জন্য চিকিৎসা সরঞ্জাম দরকার। ব্যথানাশক ট্যাবলেট, ওষুধ এবং ব্যান্ডেজ দরকার। এছাড়া খাবার ও পানীয় জলের চাহিদার কথাও জানিয়েছে তারা। 

চিরকুটে আরও উল্লেখ রয়েছে, বাতাস হালকাভাবে ঢুকছে। তবে ময়লা আর পানিতে খনি ভরে আছে। তাদের প্রত্যাশা, উদ্ধার অভিযান চলমান থাকবে।

বিশ্বের সবচেয়ে বেশি প্রাণঘাতী হচ্ছে চীনের বিভিন্ন খনি। এতে প্রায়ই দুর্ঘটনা ঘটে থাকে। নিরাপত্তা ব্যবস্থার ত্রুটি ও সরকারি নিষেধাজ্ঞা অমান্য করেই কার্যক্রম পরিচালনা করায় এসব দুর্ঘটনা ঘটে। ফলে প্রতি বছরই বহু শ্রমিক বিভিন্ন দুর্ঘটনায় প্রাণ হারায়।

গত ডিসেম্বরে চীনের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলীয় চোংকিং শহরে একটি খনিতে আটকা পড়ে কমপক্ষে ১৮ জনের মৃত্যু হয়। ডায়াসুইডং কয়লা খনিটিতে মোট ২৪ জন আটকা পড়লেও কার্বন মনোঅক্সাইড গ্যাসের কারণে প্রাণ হারান অধিকাংশ শ্রমিক।

এছাড়া তার আগে সেপ্টেম্বরে সংজাও কয়লা খনিতে কার্বন মনোঅক্সাইডের মাত্রা বেড়ে অন্তত ১৬ শ্রমিকের মৃত্যু হয়।