চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

এক ম্যাচ হাতে রেখেই সিরিজ হার

টানা দুই হারে টি-টুয়েন্টি সিরিজ হাতছাড়া করল বাংলাদেশ। এক ম্যাচ হাতে রেখেই ট্রফি নিশ্চিত করল পাকিস্তান। আগের ম্যাচে লড়াই ছিল। দ্বিতীয় ম্যাচে ৮ উইকেটের বড় ব্যবধানে হেরে গেল মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের দল।

সিরিজের তৃতীয় ও শেষ ম্যাচ সোমবার।

১০৯ রানের সহজ লক্ষ্য পাকিস্তান টপকায় ১৮.১ ওভারে, মাত্র ২ উইকেট হারিয়ে। ফখর জামান ৫৭ ও হায়দার আলি ৬ রানে অপরাজিত থাকেন।

সফরকারী ওপেনার মোহাম্মদ রিজওয়ান ৩৯ রানের ইনিংস খেলে লেগ স্পিনার আমিনুল ইসলাম বিপ্লবের বলে আউট হন। আরেক ওপেনার বাবর আজম ১ রানে ফেরেন ফেরেন শুরুতেই। পাকিস্তান অধিনায়ককে আউট করেন মোস্তাফিজুর রহমান।

প্রথম ম্যাচে ১২৭ রান তুলে ৪ উইকেটে হেরেছিলেন মাহমুদউল্লাহরা। দ্বিতীয় ম্যাচে টস জিতে আগে ব্যাট করতে নেমে ৭ উইকেট হারিয়ে বাংলাদেশ তোলে ১০৮ রান।

তাতে চ্যালেঞ্জে পড়েন বোলাররা। অল্প রানের ম্যাচে সাইফ হাসান ও তাসকিন আহমেদের সহজ দুটি ক্যাচ মিস বাংলাদেশকে ম্যাচে ফিরতে দেয়নি। হেসেখেলেই সিরিজ জিতে নিয়েছে সফরকারীরা।

বিজ্ঞাপন

এদিন নাজমুল হোসেন শান্ত সর্বোচ্চ ৪০ রান করেন ৩৪ বলে। মারেন পাঁচটি বাউন্ডারি। আফিফ হোসেন ২১ বলে ২০ রান করে যান একটি করে চার-ছয়ে।

শুরুতেই দুই ওপেনার সাইফ হাসান ও নাঈম শেখ ফিরে যান সাজঘরে। প্রথম দুই ওভারে উইকেট দেন তারা। প্রথম বল মোকাবেলা করতে এলবিডব্লিউ হন সাইফ (০), আর নাঈম ৮ বলে ২ রান করে স্লিপে ক্যাচ তুলে দেন।

আফিফ ও নাজমুল প্রতিরোধ গড়ে দলীয় পঞ্চাশ পার করেন। গড়েন ৪৬ রানের জুটি। এরপর আর জুটি হয়নি। নিয়মিত উইকেট হারিয়ে একশ পেরিয়ে থামে বাংলাদেশ।

আমিনুল ইসলাম বিপ্লব ১৭ বলে ৮ ও তাসকিন আহমেদ ৪ বলে ২ রান নিয়ে অপরাজিত থাকেন।

অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ ১২, নুরুল হাসান সোহান ১১, শেখ মেহেদী ৩ রান করে ফিরলে শেষেও তেমন রান আসেনি। শেষের ৫ ওভারে এক বাউন্ডারিতে আসে মাত্র ২৩ রান।

শাহিন শাহ আফ্রিদি ও শাদাব খান দুটি করে উইকেট নেন। হারিস রউফ, মোহাম্মদ ওয়াসিম ও মোহাম্মদ নেওয়াজ একটি করে উইকেট নেন।

বিজ্ঞাপন