চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

‘এক্সট্র্যাকশন’র সিকুয়েল আসছে

গল্প আরও বাকি আছেএক্সট্রাকশনএর। জানা গেছে, নির্মাতা জো রুশোএক্সট্র্যাকশনএর সিকুয়েলের গল্প লেখার কাজ শুরু করেছেন।

২৪ এপ্রিল মুক্তি পাওয়াএক্সট্র্যাকশনএর গল্পটিও জো রুশোর লেখা। ভাই অ্যান্থনি রুশোর সঙ্গে ছবিটি প্রযোজনাও করেছেন তিনি। বাংলাদেশের রাজধানী ঢাকার গল্পে নির্মিতএক্সট্র্যাকশন  সব রেকর্ড ভেঙে নতুন রেকর্ড গড়ার পথে আগাচ্ছে।

বিজ্ঞাপন

এক টুইট বার্তায় নেটফ্লিক্স জানিয়েছে, ‘এক্সট্র্যাকশননেটফ্লিক্সের ইতিহাসে সবচেয়ে বড় প্রিমিয়ার হয়ে উঠার পথে আছে। মুক্তির প্রথম চার সপ্তাহে ৯০ মিলিয়ন দর্শকের পরিবারে প্রবেশ করবেএক্সট্র্যাকশন

এক্সট্র্যাকশনএর সফলতায় গর্বিত ক্রিস হেমসওয়ার্থ। ইনস্টাগ্রামে তিনি লিখেছেন, ‘সিনেমাটির জন্য দর্শকের প্রতিক্রিয়া দেখেআমরা দারুণ খুশি।

হলিউডের ছবি হলেও ছবিটি নিয়ে মুখিয়ে ছিলেন বাংলাদেশ ভারতের দর্শক! এরইমধ্যে ছবিটি দেখে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে মিশ্র প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করছেন অনেকে।

ছবিতেটাইলার রেকচরিত্রে অভিনয় করেছেন ক্রিস হেমসওয়ার্থ। ছবির মূল এই চরিত্রটি অত্যন্ত শক্তিশালী। মৃত্যুর খুব কাছে থেকে এই চরিত্রটিকে একের পর এক অ্যাকশনে মেতে থাকতে দেখা যায়। ছবিতেটাইলার রেকএর অ্যাকশন মুগ্ধ করেছে দর্শকদের।

বাংলাদেশের রাজধানী ঢাকাকে ঘিরে সাজানো হয়েছে ছবির কাহিনী। মুম্বাইয়ের এক গ্যাংস্টারের ছেলেকে অপহরণ করে ঢাকায় আটকে রাখে বাংলাদেশের এক গ্যাংস্টার। সেই ছেলেকে ঢাকা থেকে উদ্ধার করতে আনা হয় একজন মার্সেনারি ক্রিস হেমসওয়ার্থকে। চলে একের পর এক অভিযান।

ক্রিস হেমসওয়ার্থ ছাড়াও ছবিতে অভিনয় করেছেন হলিউডের ডেভিড হারবার, ডেরেক লুকের মতো তারকা। এছাড়া বলিউড থেকে দেখা গেছে পঙ্কজ ত্রিপাঠি রনদীপ হুদার মতো অভিনেতাদের।

ঢাকাসিনেমার শুটিং এর বেশ কয়েকটি ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়ার পর জানা যায় ভারতের আহমেদাবাদ এবং থাইল্যান্ডের ব্যাংকক শহরে ছবিটির দৃশ্যধারণ করা হয়েছে। শুটিং এর জন্য ঢাকার আদলে বানানো হয় ছোট্ট একটি শহরও। ঢাকাছবির বেশ কিছু দৃশ্য বাংলাদেশে ধারণ করা হয়েছে।