চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

একুশে উপলক্ষে অর্ধেক খরচে বাংলা এসএমএস

মহান শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসে অর্ধেক খরচে বাংলায় এসএমএস সেবা চালুর উদ্বোধন করেছেন ডাক ও টেলিযােগাযােগ বিভাগের মন্ত্রী মােস্তাফা জব্বার।

শনিবার বিকেলে বাংলাদেশ টেলিযােগাযােগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন (বিটিআরসি) এর প্রধান সম্মেলন কক্ষে সিস্টেমস এন্ড সার্ভিসেস বিভাগ কর্তৃক আয়ােজিত এ সেবার উদ্বোধন করেন তিনি।

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

এসময় প্রধান অতিথির বক্তব্যে মন্ত্রী বলেন, বিশ্বের ৩৫ কোটি মানুষ বাংলায় কথা বলে এবং ভাষার ক্ষেত্রে বাংলা চতুর্থ মাতৃভাষা। অর্ধেক খরচে বাংলায় এসএমএস সেবা চালুর উদ্যোগ নেয়ার বিটিআরসি ও অপারেটরদের ধন্যবাদ জানান মন্ত্রী।

তিনি বলেন, বাংলা ভাষার জন্য রক্ত দিয়ে বাংলা ভাষা ভিত্তিক বাংলাদেশ রাষ্ট্রটি প্রতিষ্ঠার পর আমাদের নৈতিক দায়িত্ব সর্বত্র বাংলা চালু করা। ডাক ও টেলিযােগাযােগ বিভাগ কেবল বিদেশে চিঠিপত্র প্রেরণ ছাড়া দেশের সকল ক্ষেত্রে যােগাযােগের ভাষা হিসেবে বাংলা ব্যবহারের উদ্যোগ গ্রহণ করবে।

বিজ্ঞাপন

মন্ত্রী জানান, আমদানিকৃত ও দেশে উৎপাদিত সকল মােবাইল ফোনে বাংলার ব্যবহার সুবিধা চালু এবং প্রত্যেক স্মার্টফোনে বিল্ট ইন বাংলা সফটওয়্যার রাখার ক্ষেত্রেও নির্দেশনা রয়েছে। আগামী স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে মােবাইল ফিনান্সিয়াল সার্ভিস নগদ তাদের প্রত্যেক লেনদেনে বাংলা এসএমএস ব্যবহার করবে বলেও জানান ডাক ও টেলিযােগাযােগ মন্ত্রী।

বিটিআরসির চেয়ারম্যান শ্যাম সুন্দর সিকদার বাংলায় এসএমএস খরচ অর্ধেক করায় ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন, বর্তমানে গ্রামীণফোন ও টেলিটকে এই সুবিধা মিলবে। ৩১ মার্চ ২০২১ তারিখের মধ্যে সব অপারেটরে মিলবে এই সুবিধা।

অনুষ্ঠানে ডাক ও টেলিযােগাযােগ সচিব মােঃ আফজাল হােসেন বলেন, এদেশে এখনাে গ্রামে স্বপ্ন ও অর্ধশিক্ষিত মানুষ ইংরেজি জানে না। তাই কম খরচে বাংলায় এসএমএস সেবা চালুর ফলে সব গ্রাহক উপকৃত হবে।

বিটিআরসির ভাইস-চেয়ারম্যান সুব্রত্র রায় মৈত্র বলেন, ইংরেজিতে অনেক গ্রাহক এসএমএস বুঝতে পারে না, ফলে প্রতারিত হওয়ায় আশংকা থাকে। বাংলায় এসএমএস এর ব্যাপক প্রচলন থাকলে বিশ্বের সকল বাংলা ভাষাভাষী মানুষ উপকৃত হবে।