চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

একসঙ্গে দলত্যাগ করলেন প্রাঙ্গণেমোর-এর ২৭ নাট্যকর্মী

দেশের প্রথম সারির নাট্যদল প্রাঙ্গণেমোর থেকে একইসঙ্গে অর্ধেকেরও বেশি নাট্যকর্মী দলত্যাগ করলেন। প্রতিষ্ঠাকালীন সদস্যসহ মোট ২৭ জন নাট্যকর্মী প্রাঙ্গণেমোর দলপ্রধান বরাবর শনিবার (১২ ডিসেম্বর) দলত্যাগের চিঠি দিয়েছেন।

দলত্যাগ প্রসঙ্গে দলের স্থায়ী সদস্য মাইনুল তাওহীদ বলেন, দীর্ঘদিনের ক্রমাগত অনিয়ম আর ভাবনাগত অমিলের কারণে শেষ পর্যন্ত আর এই দলে থাকা সম্ভব হলো না। যেমন-আমি নিজে দলের অর্থের দায়িত্বে থাকলেও আমাকে পাশ কাটিয়ে অর্থের সমস্ত হিসাব দলপ্রধান অনন্ত হিরা নিজে কুক্ষিগত করে রেখেছিলেন।

বিজ্ঞাপন

দলের আরেক স্থায়ী সদস্য জাহিদুল ইসলাম বলেন, দলটি আসলে পারিবারিক থিয়েটার হয়ে উঠেছিল, এখানে সাধারণ সদস্যদের কোনো সম্মান ও মূল্য ছিল না, তাদের মতামতের কোনো গুরুত্ব ছিল না।

দলত্যাগ প্রসঙ্গে স্থায়ী সদস্য সরোয়ার সৈকত বলেন, একসঙ্গে ২৭ জন সদস্যের দলত্যাগই প্রমাণ করে দলটির অবক্ষয় কোন পর্যায়ে গিয়ে পৌঁছেছিল। এটা আসলে সাধারণ সদস্যদের দীর্ঘদিনের পুঞ্জিভূত ক্ষোভের বহিঃপ্রকাশ। দলের ভেতরে যে অন্যায় আর অনিয়মের পাহাড় তৈরি হয়েছে সেই দায়ভার আসলে সাধারণ সদস্যরা টানতে চায় না।

নিজেদের শ্রম, মেধা আর ঘামে একদিন যে প্রাণের দল তৈরি করেছিল আজ সেই প্রিয় দল থেকে বেরিয়ে গেলেন মাইনুল তাওহীদ, জাহিদুল ইসলাম, সরোয়ার সৈকত, ইউসুফ পলাশ, তৌফিক আজীম রবিন, রবি খান, মীর সালাউদ্দিন বাবু, আবু হায়াত মাহমুদ জসিম, সাইম সিদ্দিকী অপু, রিগ্যান সোহাগ রত্ন, শুভেচ্ছা রহমান, প্রবন বন্ধু নাথ তুহিন, সীমান্ত আমীন, জয়নাল আবেদীন মনির, আমিরুল মামুন, অনিন্দ্র কিশোর, ডালিম মিলাদ, তৌহিদ বিপ্লব, সাইদুর রহমান নয়ন, আহমেদ সুজন, লিটু রায়, রুহুল আমীন রাজা, মো. রাকিব হাসান খান রওনক,মাহমুদুল হাসান, আব্দুল হাই, এম এম আর মিঠুন, ঊর্মিল মজুমদারসহ সর্বমোট ২৭ জন নাট্যকর্মী।