চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

একদিনে কুমিল্লায় ৪ সড়ক দুর্ঘটনা, নিহত ৮

একদিনে কুমিল্লায় আলাদা চারটি সড়ক দুর্ঘটনায় অন্তত ৮ জন নিহত হয়েছে। এসব ঘটনায় আহত হয়েছে আরো ৩০জন।

এদের মধ্যে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের দাউদকান্দির ইলিয়টগঞ্জে দুইজন, গৌরীপুরে তিনজন, বুড়িচং এলাকায় দুইজন এবং ক্যান্টনমেন্ট এলাকায় একজন নিহত হয়।

শনিবার দুপুর ২টায় দাউদকান্দি উপজেলার গৌরীপুর বাসস্ট্যান্ডে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে একটি যাত্রীবাহী বাস খাদে পড়ে গেলে তিনজন নিহত হয়।

ঢাকা থেকে চট্টগ্রামগামী ওই যাত্রীবাহী বাস এক মহিলা পথচারীকে চাপা দিয়ে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে রাস্তার পাশে খাদে পড়ে যায়। পুলিশ প্রায় ২ ঘণ্টাব্যাপি উদ্ধার তৎপরতা চালিয়ে পানির নিচে বাস থেকে অজ্ঞাত ২ পুরুষ যাত্রীর লাশ উদ্ধার করে।

আহতদের স্থানীয় গৌরীপুর হাসপাতালে চিকিৎসা সেবা দেয়া হয়।পথচারী দাউদকান্দি উপজেলার ঢাকারগাওঁ গ্রামের আবুল খায়েরের স্ত্রী নুরুন নেছা (৩০) এর লাশ তার পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

আরেকটি ঘটনায় দাউদকান্দির ইলিয়টগঞ্জে সকালে ঢাকাগামী একটি গ্রিন লাইন যাত্রীবাহী বাস পেছন থেকে একটি কাভার্ডভ্যানকে সজোরে ধাক্কা দিলে ঘটনাস্থলেই বাসের হেলপার ও সুপারভাইজার নিহত হন।

গ্রিন লাইন বাসের নিহত সুপার ভাইজার ফয়সাল (৩০) কুমিল্লা সদর দক্ষিণ থানার লালবাগ গ্রামের কায়কোবাদের ছেলে এবং হেলপার মনোয়ার হোসেন (২৪) মানিকগঞ্জ জেলার হরিরামপুর থানার কাজিকান্দা গ্রামের ইদ্রিস শেখের ছেলে।

দুপুর সাড়ে ১২টায় মহাসড়কের বুড়িচং উপজেলার কোরপাই এলাকায় একটি প্রাইভেটকার নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে গাছের সাথে ধাক্কা খায়। এতে কারের যাত্রী টাঙ্গাইল সদরের আশেকপুর এলাকার মতিয়ার রহমানের ছেলে হুমায়ুন কবির ও একই জেলার আকুরটাকুর এলাকার আশেক আলীর ছেলে মজিবুর রহমান নিহত হন।

কুমিল্লা ক্যান্টনমেন্ট এলাকায় আরেকটি দুর্ঘটনায় এক নারী নিহত হন।

দাউদকান্দি হাইওয়ে থানার ওসি আবুল কালাম আজাদ ও ময়নামতি হাইওয়ে থানার ওসি মাহাবুবুর রহমান এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন।