চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

একজন ডোপপাপীও পেয়ে গেল টোকিও অলিম্পিক

নয় দিন ধরে সোনা, রুপা, ব্রোঞ্জের ঝনঝনানি চলছিল। চলছিল রেকর্ড-বিশ্বরেকর্ড গড়া-ভাঙার খেলা। লেখা হচ্ছিল কত আনন্দ-বেদনার গল্প। এরমাঝেই এলো বিষাদের এক খবর। একজন ডোপপাপীও পেয়ে গেছে টোকিও অলিম্পিক!

ডোপ টেস্টে উতরে যেতে পারেননি নাইজেরিয়ার স্প্রিন্টার ব্লেসিং ওকাগবারে। শরীরে নিষিদ্ধ হরমোনের উপস্থিতি ধরা পড়ায় তাকে টোকিও আসর থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে।

টোকিও অলিম্পিকে শুক্রবার নিজ হিটে সাফল্য এনে ১০০ মিটার স্প্রিন্টের সেমিফাইনালে পা রেখেছিলেন ওকাগবারে। ১১.০৫ সেকেন্ড সময় নিয়ে সেমিতে যান। সেখানে গ্রেট ব্রিটেনের ডিনা অ্যাশের-স্মিথ ও জ্যামাইকার ইলিনে থম্পসন-হেরাথের বিপক্ষে প্রতিযোগিতা করতেন।

বিজ্ঞাপন

কিন্তু শনিবার সব ওলট-পালট হয়ে গেল। অ্যাথলেটিকস ইন্টেগ্রিটি ইউনিটের (এআইইউ) বরাতে জানা যায়, ৩২ বছর বয়সী তারকার শরীরে নিষিদ্ধ হিউম্যান গ্রোথ হরমোনের উপস্থিতি মিলেছে।

গত ১৯ জুলাই নমুনা নেয়া হয়েছিল ওকাগবারের। ডোপ টেস্টে পজিটিভ হওয়া ও অস্থায়ী নিষেধাজ্ঞার বিষয়টি শনিবার তাকে জানিয়ে দিয়েছে এআইইউ। এই ঘটনার উপর আপাতত কোনো মন্তব্যও দিতে পারবেন না নাইজেরিয়ান স্প্রিন্টার।

২০০৮ সালে বেইজিং অলিম্পিকে লং জাম্পে রুপা জিতেছিলেন ওকাগবারে। শনিবার নিজ হিটে আভাস দিয়েছিলেন আরেকটি পদকের। সেটি আপাতত থমকে গেল।

অবশ্য ডোপিং নীতিমালা অনুযায়ী, বি-স্যাম্পল বা ব্যাকআপ স্যাম্পল দিয়ে পুনরায় টেস্ট করানোর আবেদন জানাতে পারবেন ওকাগবারে। ডাবল চেকের আবেদনও জানাতে পারবেন ২০১৩তে লং জাম্পের বিশ্বচ্যাম্পিয়ন তারকা।

বিজ্ঞাপন