চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

ঋণ শোধে আরো ৩ মাস ছাড় পেলেন আর্থিক প্রতিষ্ঠানের গ্রাহকেরা

ব্যাংকের পর এবার লিজিং কোম্পানি বা ব্যাংকবহির্ভূত আর্থিক প্রতিষ্ঠানের গ্রাহকরাও ঋণ পরিশোধে ডিসেম্বর পর্যন্ত ছাড় পেলেন। অর্থাৎ আগামী ডিসেম্বর পর্যন্ত স্বল্প ও দীর্ঘমেয়াদি ঋণের কিস্তি দিতে না পারলেও তারা খেলাপি হবেন না।

রোববার বাংলাদেশ ব্যাংকের আর্থিক প্রতিষ্ঠান ও বাজার বিভাগ থেকে ছাড়ের মেয়াদ ডিসেম্বর পর্যন্ত বাড়িয়ে একটি প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়েছে।

বিজ্ঞাপন

এর আগে করোনাভাইরাসের প্রভাবে দেশের ব্যবসা-বাণিজ্যের লোকসানের কথা বিবেচনা করে প্রথম দফায় চলতি বছরের জানুয়ারি থেকে জুন পর্যন্ত এই ছাড় দেয়া হয়। পরবর্তী সময়ে তা বাড়িয়ে সেপ্টেম্বর পর্যন্ত করা হয়।

বিজ্ঞাপন

বাংলাদেশ ব্যাংকের নতুন নির্দেশনায় বলা হয়েছে, জানুয়ারি থেকে ডিসেম্বর পর্যন্ত সময়ে কোনও গ্রাহক কিস্তি পরিশোধ করতে না পারলে জানুয়ারি থেকে ওই কিস্তির পরিমাণ ও সংখ্যা পুনরায় নির্ধারণ করতে পারবে আর্থিক প্রতিষ্ঠান।

বর্তমানে দেশে ৩৩টি আর্থিক প্রতিষ্ঠান কার্যক্রম পরিচালনা করছে। গত জুনের শেষে এসব প্রতিষ্ঠানের খেলাপি ঋণ দাঁড়িয়েছে ৮ হাজার ৯০৫ কোটি টাকা, যা বিতরণ করা ঋণের ১৩ দশমিক ২৯ শতাংশ।

এর আগে গত ২৮ সেপ্টেম্বর ব্যাংকের গ্রাহকদের ঋণ পরিশোধের ছাড় ডিসেম্বর পর্যন্ত বাড়িয়ে একটি প্রজ্ঞাপন জারি করেছিল বাংলাদেশ ব্যাংক।

খেলাপি করার নির্দেশনা না থাকার পরও গত জুন ত্রৈমাসিকে দেশের ব্যাংক খাতের খেলাপি ঋণ ৪ হাজার কোটি টাকা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৯৬ হাজার ১১৬ কোটি টাকায়।