চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

উয়েফার শাস্তি পেতে পারেন পচেত্তিনো-খালেফি

রিয়াল মাদ্রিদের প্রত্যাবর্তনের রাতে শেষ ষোলোতেই বিদায় নিয়েছে পিএসজি। এমন হারে মেজাজ ঠিক রাখতে পারেনি ক্লাবটির মালিক নাসের আল খেলাইফি। রেফারি ও ভিএআর নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন কোচ মাউরিসিও পচেত্তিনো। উভয়ের এমন কাণ্ড চোখে পড়েছে উয়েফার। দুজনেই পেতে পারেন শাস্তি।

নাসের আল খেলাইফিকে ঘিরে খবর, হারের পর রেফারির কক্ষে গিয়ে শাসিয়ে এসেছেন। এমনকি রিয়ালের এক স্টাফকে হত্যার হুমকিও দিয়েছেন এই ধনকুবের। পুরো ঘটনাটির ভিডিও এসেছে উয়েফার কাছে। এহেন কাণ্ডের কারণে এবার নিষেধাজ্ঞার মুখোমুখি হতে পারেন প্যারিসের ক্লাবটির মালিক।

Reneta June

স্প্যানিশ গণমাধ্যমে খবর, ম্যাচের শেষ বাঁশি বাজার পর রেফারিকে খুঁজতে যান খেলাইফি। প্রথমে ভুল করে রিয়ালের একটি কক্ষে ঢুকে যান তিনি। সেখানে ক্লাবটির একজন স্টাফকে বলেন, ‘আমি তোমাকে মেরে ফেলব।’ অপ্রীতিকর এমন ঘটনার সময় খেলাইফিকে সংযত করেন দেহরক্ষীরা।

বিজ্ঞাপন

ঘটনাস্থলে উয়েফার কর্মকর্তারা ছিলেন, যারা সবকিছুর সাক্ষী। খেলাইফির আচরণের সবকিছু রিয়ালের এক স্টাফ রেকর্ডও করে রাখেন। উয়েফা যাতে পিএসজি প্রেসিডেন্টের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেয়, সেজন্য রেকর্ড করা ফুটেজ পাঠানো হয়েছে ইউরোপের ফুটবলের নিয়ন্ত্রক সংস্থাটির কাছে। খুব দ্রুতই সংস্থাটি জানাবে, খেলাইফির ব্যাপারে সিদ্ধান্ত।

রেফারি ও ভিএআর নিয়ে একহাত নিয়েছেন পিএসজি কোচ মাউরিসিও পচেত্তিনো। ম্যাচ শেষে তিনি বলেন, ‘মহা অন্যায়ের শিকার হওয়ার অনুভূতি হচ্ছে আমার। কারণ দোন্নারুমাকে বেনজেমা পরিষ্কার ফাউল করার পর আমরা গোলটি হজম করি…। এটা ফুটবল, শীর্ষ মহাদেশীয় টুর্নামেন্ট এটি এবং এখানে ছোট ছোট ব্যাপারগুলি খুবই গুরুত্বপূর্ণ। আজকে ভিএআর ফাউলটি ধরতে পারেনি এবং সেটিই পরে নিয়ামক হয়ে দাঁড়িয়েছে।’

রেফারিং এবং চ্যাম্পিয়ন্স লিগের বিষয়ে এমন মন্তব্য করার বিষয়টি নজরে এনেছে উয়েফা। আর্জেন্টাইন কোচ এজন্য আসতে পারেন শাস্তির আওতায়। ২০

২০১৯ সালের চ্যাম্পিয়ন্স লিগে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের কাছে বাদ পড়ার পর রেফারির সমালোচনা করেছিলেন নেইমার। সেবার পিএসজি ফরোয়ার্ডকে তিন ম্যাচের নিষেধাজ্ঞা দিয়েছিল উয়েফা। এবার ক্লাবটির কোচের কি শাস্তি হয় সেটাই দেখার।