চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

উৎসবে বাংলাদেশের ৮টি পূর্ণদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র

ঢাকা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবের ১৮তম আসরের পর্দা উঠছে শনিবার…

শনিবার (১১ জানুয়ারি) আনুষ্ঠানিকভাবে পর্দা উঠছে ঢাকা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবের ১৮তম আসরের। বিশ্বের ৭৪টি দেশের ২২০টি চলচ্চিত্র নিয়ে শুরু হতে যাওয়া এই উৎসবে দেখানো হবে বাংলাদেশের ৮টি পূর্ণদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র।

রেইনবো চলচ্চিত্র সংসদের উদ্যোগে বরাবরের মতোই এবারের উৎসবেও এশিয়ান ফিল্ম প্রতিযোগিতা বিভাগ, রেট্রোস্পেকটিভ বিভাগ, বাংলাদেশ প্যানারোমা, সিনেমা অফ দ্য ওয়ার্ল্ড, চিল্ড্রেন ফিল্মস্, স্পিরিচুয়াল ফিল্মস, শর্ট অ্যান্ড ইন্ডিপেনডেন্ট ফিল্ম এবং উইমেন্স ফিল্ম মেকার বিভাগে চলচ্চিত্র প্রদর্শিত হবে। ৯ দিনব্যাপী এই উৎসবে উপস্থিত থাকবেন দেশি, বিদেশি চলচ্চিত্র নির্মাতা, প্রযোজক ও কলাকুশলীরা।

আর এই উৎসবেই ‘বাংলাদেশ প্যানারোমা’ বিভাগে দেখানো হবে এন রাশেদ চৌধুরী পরিচালিত মুক্তি প্রতীক্ষিত ছবি চন্দ্রাবতী কথা, আশরাফ শিশিরের বহুল আলোচিত চলচ্চিত্র আমরা একটি সিনেমা বানাবো, অরুণ চৌধুরীর ‘মায়াবতী’, প্রদীপ ঘোষের ‘শাটল ট্রেন’, ফরিদ আহমেদে ‘টিউনস অব নস্টালজিয়া’, মাসুদ পথিকের ‘মায়া’, প্রসুন রহমানের ‘নিগ্রহকাল’ এবং তানিম রহমান অংশুর ‘ন ডরাই’।

বিজ্ঞাপন

উৎসব আয়োজকরা জানিয়েছেন, ছবিগুলো কেন্দ্রীয় গণগ্রন্থাগারের শওকত ওসমান মিলনায়ত প্রতিদিন সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় দেখানো হবে।

শনিবার বিকালে পর্দা উঠছে অষ্টাদশ ঢাকা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবের। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আবদুল মোমেন, এমপি। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করবেন উৎসবের প্রধান পৃষ্ঠপোষক ও পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী জনাব শাহরিয়ার আলম, এমপি।

উদ্বোধনী চলচ্চিত্র ‘উইন্ডো টু দ্য সি’। স্পেন ও গ্রীসের যৌথ প্রযোজনায় নির্মিত চলচ্চিত্রটি পরিচালনা করেছেন মিগুয়েল অ্যাঞ্জেল জিমেনেজ। উৎসবে উপস্থিত থাকবেন তিনি এবং এশিয়ান প্রতিযোগিতা বিভাগে জুরি’র দ্বায়িত্ব পালন করবেন। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের পরই চলচ্চিত্রটি প্রদর্শীত হবে। এদিন সন্ধ্যা সাড়ে সাতটায় ‘বাংলাদেশ প্যানারোমা’ বিভাগে দেখানো হবে অরুণ চৌধুরীর ‘মায়াবতী’।

বিজ্ঞাপন