চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ
Nagod

উসমানের সেঞ্চুরিতে ম্লান আজমের কীর্তি

KSRM

বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের (বিপিএল) নবম আসরে প্রথম সেঞ্চুরি করা আজম খানের হাসি কেড়ে নিলেন উসমান খান। সেঞ্চুরির জবাবে দেখা মিলল সেঞ্চুরি। এক ম্যাচে দুই সেঞ্চুরি, তবে শেষ হাসি হাসলেন উসমানই।

দুজনই পাকিস্তানের ক্রিকেটার। টি-টুয়েন্টিতে তারা প্রথম সেঞ্চুরির দেখা পেলেন বিপিএল খেলতে এসে। ছক্কা মেরে তিন অঙ্ক স্পর্শ করেন দুজনই।

মিরপুরে সোমবার রাতের ম্যাচে চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্সের বিপক্ষে ৫৮ বলে ১০৯ রানের অপরাজিত ইনিংস খেলে খুলনা টাইগার্সকে ১৭৮ রানের পুঁজি এনে দেন আজম। জবাবে ৫৮ বলে ১০৩ রানের অপরাজিত ইনিংস খেলে ৪ বল আগেই ৯ উইকেটের জয় এনে দেন উসমান। মারেন দশটি চার, ৫টি ছক্কা।

উসামনের ওপেনিং পার্টনার ম্যাক্স ও’ডড করেন ৫৮ রান। দুজন উদ্বোধনী জুটিতে যোগ করেন ১৪১ রান। তাতে সহজ হয় জয়ের পথ।

তার আগে ঝড়ো ইনিংস শের-ই-বাংলা স্টেডিয়াম মাতান পাকিস্তানের সাবেক উইকেটরক্ষক-ব্যাটার মইন খানের ছেলে আজম।

৮টি ছয়, ৯টি চারে ইনিংস সাজান। ৩৩ বলে ফিফটি পূর্ণ করা ডানহাতি ব্যাটার সেঞ্চুরি করতে খেলেন ৫৭ বল। ছক্কা মেরে তিন অঙ্কে পৌঁছান এ ক্রিকেটার। শেষ বলেও মারেন ওভার বাউন্ডারি। বাবার মতো উইকেটকিপিংও করেন আজম।

২৪ বছর বয়সী এ ক্রিকেটারের বিধ্বংসী ইনিংসে খুলনা ২০ ওভারে ৫ উইকেট হারিয়ে তোলে ১৭৮ রান। দলটির ওপেনার তামিম ইকবালের ব্যাট থেকে আসে ৪০ রান। নবম বলে রানের খাতা খোলেন। নড়বড়ে শুরুর পরও দু’বার জীবন পান ১৫ ও ৩১ রানে। ৩৭ বলে ৫টি চার ও একটি ছয় মারেন এ বাঁহাতি।

সাব্বির রহমান করেন ৭ বলে ১০ রান। বাকি কেউ ছুঁতে পারেনি দুই অঙ্ক। আবু জায়েদ রাহি দুটি উইকেট নেন।

বিজ্ঞাপন

Nil Joler Kabbo
Bellow Post-Green View